অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটে জ্বালানি তেলের অভাবে তিন বিভাগে অচলাবস্থা

১৫ দফা দাবিতে গতকাল রবিবার সকাল থেকে রাজশাহী, রংপুর ও খুলনা বিভাগে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট করছে বাংলাদেশ পেট্রল পাম্প ও ট্যাংক লরি মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদ। ধর্মঘটের কারণে রাজশাহী, রংপুর ও খুলনা বিভাগের প্রায় দুই হাজার পেট্রল পাম্প বন্ধ রয়েছে। এতে অচলাবস্থার তৈরি হয়েছে তিন বিভাগে।

ধর্মঘটের পাশাপাশি ডিপো থেকে তেল উত্তোলন ও পরিবহনও বন্ধ রয়েছে। গতকাল সকাল থেকে বিভিন্ন জেলার শহর ও মহাসড়কের পাশের সব পেট্রল পাম্প কালো কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখতে দেখা গেছে। কোনো পাম্পই পেট্রল ও ডিজেল বিক্রি করছে না। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন গাড়িচালকরা। এ সুযোগে অনেক অসাধু ব্যক্তি দোকানে মজুদ করে চড়া দামে জ্বালানি তেল বিক্রি করছে।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ পেট্রল পাম্প ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট এম এ মোমিন দুলাল বলেন, ‘আমাদের ১৫ দফা দাবি ন্যায়সংগত। এসব দাবি নিয়ে সরকারের সঙ্গে বিভিন্ন সময় আলোচনা করলেও আশ্বাস ছাড়া আর কিছুই মেলেনি। তাই ধর্মঘট শুরু করা হয়েছে। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত ধর্মঘট চলবে।’

রাজশাহীতে দেখা গেছে, পাম্পে পাওয়া না গেলেও খোলাবাজারে অতিরিক্ত দামে বিক্রি হচ্ছে তেল। খোলাবাজারে প্রতি লিটার পেট্রল বিক্রি হচ্ছে ১১০ থেকে ১২০ টাকায়, যা পাম্পগুলোতে বিক্রি হয় ৮৭ টাকা দরে। কিন্তু পাম্প বন্ধ থাকায় অতিরিক্ত দামে খোলা তেল কিনতেই বাধ্য হচ্ছেন মোটরসাইকেলচালক থেকে শুরু করে বিভিন্ন যানবাহনের চালকরা।