অস্ট্রেলিয়ার নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের ‘অলৌকিক’ বিজয়


অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় নির্বাচনে টানা তৃতীয়বারের মতো জয় পেয়েছে ক্ষমতাসীন লিবারেল ও ন্যাশনাল পার্টির জোট। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসনের নেতৃত্বে এ জয় এসেছে।

গতকাল শনিবার অনুষ্ঠিত হয় অস্ট্রেলিয়ার ৪৬তম ফেডারেল নির্বাচন। সন্ধ্যা ৬টা থেকে শুরু হয় ভোট গণনা। সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনের ফল ঘোষণা করা হয়নি। তবে এখন পর্যন্ত ভোট গণনায় লিবারেল ও ন্যাশনাল পার্টির জোট যে কয়টি আসন পেয়েছে, তাতেই বিজয় নিশ্চিত হয়ে গেছে তাদের। এখন পর্যন্ত গণনা করা হয়েছে অন্তত ৭০ শতাংশ ভোট।

একটি দলের সরকার গঠন করতে প্রয়োজন ৭৬টি আসন। লিবারেল ও ন্যাশনাল পার্টির জোট পেয়েছে ৭৪টি আসন। অন্য ছয় আসনের মধ্যে দুটিতেই এগিয়ে রয়েছে এই জোট। অন্যদিকে সম্ভাবনা জাগিয়েও বিরোধী দল লেবার পার্টি পেয়েছে ৬৬টি আসন।

তবে এভাবে জয় নিশ্চিত হয়ে যাবে, তা যেন কল্পনাই করেননি ক্ষমতাসীন লিবারেল ও ন্যাশনাল পার্টির জোটপ্রধান বর্তমান প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন। কারণ, এর আগে বিভিন্ন জরিপে দেখা গেছে, এবারের নির্বাচনে সম্ভাবনার তুঙ্গে রয়েছে বিরোধী দল লেবার পার্টি। সে জন্য জয়ের সম্ভাবনা ফিরিয়ে আনতে বেশ হিসাব-নিকাশই করতে হয়েছে ক্ষমতাসীন জোটকে। একদম শেষ পর্যায়ে এসে ‘অলৌকিক’ভাবেই নির্বাচনের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছে ক্ষমতাসীন লিবারেল ও ন্যাশনাল পার্টির জোট।

আর সে জন্যই স্কট মরিসন উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে তাঁর সমর্থকদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেই ফেললেন, ‘আমি সব সময় অলৌকিক ঘটনায় বিশ্বাস করি।’

অন্যদিকে বিরোধী দল লেবার পার্টির প্রধান বিল শর্টেন জানিয়েছেন, পরাজয় মেনে নিয়ে দল থেকে পদত্যাগ করবেন তিনি।