অ্যাভেঞ্জার্স এন্ডগেম : স্পর্শ করল ইতিহাসের সর্বোচ্চ রেটিং


অ্যাভেঞ্জার্স এন্ডগেম শুক্রবার মুক্তি পেল বিশ্বে। ২০১৮তে অ্যাভে়ঞ্জার্স ইনফিনিটি ওয়ার মুক্তির পর থেকেই দর্শকের উন্মাদনা রয়েছে জোয় ও অ্যান্থনি রুশোর পরিচালনায়, এন্ডগেম নিয়ে। ছবিতে থ্যানোসের কাছে পরাস্ত হয়েছে বেশিরভাগ সুপারহিরোরা। আর এই ছবিতে দর্শক সুপারহিরোদের ফিরে আসার প্রচেষ্টা দেখতেই তৎপর বলে মনে করা হচ্ছে। যাই হোক, দর্শক সন্তুষ্ট এন্ডগেম দেখে। কেননা ইতিহাসে আইমডিবিতে সর্বোচ্চ রেটিং প্রাপ্ত চলচ্চিত্র অ্যাভেঞ্জার্স এন্ডগেম। এর রেটিং ৯.২। বিশ্বে আর কোনো চলচ্চিত্র এর চেয়ে বেশি রেটিং প্রাপ্ত হয়েছে।

তবে বলে রাখা ভালো ৯.২ প্রাপ্ত আরো দু’টি চলচ্চিত্র রয়েছে। ১৯৯৪ সালে নির্মাতা ফ্রাঙ্ক ডারাবোন্টের শশাঙ্ক রিডেম্পশন পেয়েছিল আইমডিবি ৯.২। এতে টিম রবিন্স, মর্গ্যান ফ্রিম্যান ও বব গান্টনের মতো তারকারা অভিনয় করেছিলেন। এছাড়াও ১৯৭২ সালের চলচ্চিত্র দ্য গডফাদার পেয়েছিল একই রেটিং। মারিও পুজোর বিখ্যাত উপন্যাস দ্য গড ফাদার অবলম্বনে চলচ্চিত্রটি নির্মিত হয়। আল পাচিনো, জেমস কান, মারলোন ব্র্যান্ডো।

শশাঙ্ক রিডেম্পশনের পরে ২৫ বছর পরে অ্যাভেঞ্জার্স এন্ডগেম আইএমডিবিতে এই সর্বোচ্চ রেটিং প্রাপ্ত হলো। এই ছবির নির্মাতারা বারবার বলে এসেছে এই ছবির লক্ষ্য ছয় জন অরিজিনাল সুপারহিরোর উপরেই। তারা হলেন- আয়রন ম্যান, ক্যাপ্টেন আমেরিকা, থর, হাল্ক, ব্ল্যাক উইডো এবং হওকি। তারা যে ক্যাপ্টেন মার্ভেল ও আ্যান্টম্যানের সহায়তা পাবে একথা বলার অপেক্ষা রাখে না। এন্ডগেম ফিরিয়ে আনতে পারে ওকোয়ে, জেমস রোডস, রকেট এবং নেবুলাকে। যারা থ্যানোসের হাত থেকে বেঁচে গিয়েছিল।

অ্যাভেঞ্জার্সে ইনফিনিটি ওয়ারের আবেগঘন পরিণতির পর দর্শক প্রস্তুত অ্যাভেঞ্জার্স এন্ডগেম দেখতে। তবে আগের ছবির মতোই নির্মাতারা বারবার অনুরোধ করছেন স্পয়লার না দেওয়ার জন্য। তবে সিনেমাহলে দর্শকের ভিড় প্রমাণ করছে অ্যাভেঞ্জার্স নিয়ে বিশ্বের উন্মাদনা কতখানি। মার্ভেলের এই ছবি ‘অ্যাভেজ্ঞার্স এন্ডগেম’ প্রায় সমস্ত সিনেপ্রেমীদের এক ছাদের তলায় নিয়ে এসেছে। রিলিজের আগেই রেকর্ড ব্রকিং অগ্রিম টিকিট বুক হয়েছে ছবির। টিকিট বুকিং সাইট বুক মাই শোয়ে ২৪ ঘণ্টায় প্রায় ১ মিলিয়ন টিকিট বিক্রি হয়ে যায়।