আইপিএল আয়োজনে আগ্রহী আরব আমিরাত

শ্রীলঙ্কার পর এবার ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ আয়োজন করার প্রস্তাব দিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত।

ভারতীয় একাধিক গণমাধ্যম বিয়ষটি নিশ্চিত করেছে। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে ১৩তম ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত করা হয়েছে। ২৯ মার্চ এ প্রতিযোগিতা শুরু হওয়ার কথা ছিল। তবে অক্টোবর-নভেম্বর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ না হলে ওই সময়ে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) আয়োজনে জোর চেষ্টা চালাবে ভারত। সেই প্রস্তুতি ভেতরে ভেতরে নিতে শুরু করেছে আইপিএলের আয়োজকরা।

ভারতে এখনও করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসেনি। এজন্য দেশের বাইরে আয়োজনের পরিকল্পনাও নাকি হচ্ছে। লক ডাউনের শুরুতে শ্রীলঙ্কা আইপিএল আয়োজনের প্রস্তাব দিয়েছিল ভারতকে। যদিও ভারত শ্রীলঙ্কায় আইপিএল আয়োজনে আগ্রহ দেখায়নি। এবার সংযুক্ত আরব আমিরাত আয়োজক হতে ভারতকে আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব পাঠিয়েছে।

বিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলি এর আগে জানিয়েছেন, ভারতেই আইপিএল অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু পরিস্থিতির কোনও উন্নতি না হওয়ায় বিসিসিআই ভিন্ন পরিকল্পনা করে রাখছে। এ বছর আইপিএল না হলে ভারতের ৪০০০ কোটি রূপি ক্ষতি হবে। এর আগে ২০১৪ সালে আইপিএল সংযুক্ত আরব আমিরাতে হয়েছে। সেবার সাধারণ নির্বাচনের জন্য আরব আমিরাতে খেলা চালিয়েছিল ভারত।     

সংযুক্ত আরব আমিরাতের ক্রিকেট বোর্ডের সেক্রেটারি মুবাস্বির উসমানি গালফ নিউজকে বলেছেন,‘আরব আমিরাত এর আগে সাফল্যের সাথে আইপিএলের আয়োজক হয়েছিল। নিরপেক্ষে ভেন্যু হিসেবে আমাদের বেশ সুনাম রয়েছে। আমরা এবারও ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে আইপিএল আয়োজনের প্রস্তাব পাঠিয়েছি।’  

শুধু আইপিএল নয়, আরব আমিরাত ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলকে তাদের মৌসুমের সব খেলা আমিরাতে আয়োজনের প্রস্তাব পাঠিয়েছে।