আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ জয়ী ফুটবলারের মৃত্যু


আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ জয়ী ফুটবলার হোসে লুইস ব্রাউন আর নেই। ৬২ বছর বয়সে তিনি ইন্তেকাল করেছেন। এক টুইট বার্তায় তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে আর্জেন্টিনার ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন। পাশাপাশি শোকও জানিয়েছে।

১৯৮৬ বিশ্বকাপের ফাইনালে পশ্চিম জার্মানির বিপক্ষে প্রথম গোলটি করেছিলেন তিনি।

ব্রাউনকে মানুষ ভালোবেসে ডাকত টাটা নামে। যিনি তার ক্যারিয়ারের অধিকাংশ সময় খেলেছেন এস্তুদিয়ান্তেস এর হয়ে। এই ক্লাবটির হয়ে তিনি ৩০০ ম্যাচ খেলেছিলেন। ১৯৮৫-৮৬ মৌসুমে হাঁটুর ইনজুরির কারণে তাকে দেপোর্তিভো এস্পানিওল ছেড়ে দেয়। কিন্তু ইনজুরি থাকা সত্ত্বেও তাকে বিশ্বকাপের স্কোয়াডে রাখা হয়েছিল। মূলত প্রথম পছন্দ ড্যানিয়েল পাসারেলার বিকল্প হিসেবে তাকে রাখা হয়েছিল।

অসুস্থ্যতার কারণে পাসারেলা বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গেলে দিয়েগো ম্যারাডোনার নেতৃত্বাধীন আর্জেন্টিনার শুরুর একাদশে সুযোগ পান। আর্জেন্টিনার হয়ে ৩৬টি ম্যাচ খেলেছিলেন ব্রাউন। জাতীয় দলের হয়ে তিনি একটিই গোল করেছেন। তাও আবার বিশ্বকাপের মঞ্চে, ফাইনালে। ম্যাচের ২৩ মিনিটে মাথায় আর্জেন্টিনার হয়ে তিনিই প্রথম গোলটি করেছিলেন। শেষ পর্যন্ত আর্জেন্টিনা ৩-২ গোলে পশ্চিম জার্মানিকে হারিয়ে শিরোপা জিতেছিল।

ম্যাচের একটা সময় তিনি কাঁধের ইনজুরিতে পড়েন। কিন্তু তাকে মাঠ থেকে উঠানো যায়নি। ব্যাথা নিয়েই খেলা চালিয়ে যান। শেষ পর্যন্ত আর্জেন্টিনার হয়ে দ্বিতীয় বিশ্বকাপ জিতে মাঠ ছাড়েন।

বিশ্বকাপ জয়ের ৩৩ বছর পর পৃথিবী ছেড়ে বিদায় নিলেন তিনি। আর্জেন্টিনার ফুটবল ইতিহাসে তার নাম স্মরণীয় হয়ে থাকবে।