আর দেরি করতে রাজি নন দীপিকা

দীপিকা পাডুকোনের ওপর তার ভক্তদের ভরসা আছে বেশ। থাকবে না কেন, গল্প-চরিত্র তন্ন তন্ন করে বিশ্লেষণ করে তারপর শুটিংসেটে যান তিনি। দুর্বল গল্পের সিনেমায় নাম লেখান না তিনি। মান ঠিক রাখতে বছরে ৮-১০টি সিনেমায় নাম লেখানোকে ‘না’ বলেছেন অনেক আগেই। দীপিকা এখন ব্যস্ত মহাকাব্য মহাভারতের দ্রৌপদীকে ঘিরে।

এ মহাকাব্য নিয়ে এর আগেও অনেক চলচ্চিত্র নির্মাণ হয়েছে বলিউড ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে। তবে এবার যে আখ্যান পর্দায় আসছে তা অন্যরকম।

বাহুবলী খ্যাত পরিচালক এস এস রাজামৌলি নির্মাণ করছেন চলচ্চিত্রটি। আর সেখানে মূল চরিত্র দ্রৌপদীর ভূমিকায় থাকছেন দীপিকা পাডুকোন। দ্রৌপদী হিসেবে তিনিই বলবেন মহাভারতের গল্প। এরইমধ্যে এ সিনেমার প্রশংসা করেছেন অনেকে।

এ প্রসঙ্গে বলিউড নায়িকা দীপিকা বলেন, ‘আমি এমন মানুষ নই, যে কি-না আলোড়ন তোলার লক্ষ্যে নতুন কোনো প্রকল্পের ঘোষণা দেবো। ছপাক-এর প্রচারণা নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। যে কারণে এটি (ছবিটি) নিয়ে আলোচনা করার কোনো সময় পাইনি। এখন পর্যন্ত আমরা সম্ভাব্য কলাকুশলীদের নাম ঠিক করতে পারিনি। তবে শিগগিরই নামগুলো সবাই জানতে পারবেন।’

ছবিটির নির্মাণযজ্ঞ নিয়ে দীপিকা আরো বলেন, ‘অন্যান্য ছবির মতো করে মহাভারত বানানো হবে না। প্রডাকশনের স্কেল থেকে শুরু করে বাজেট ও কস্টিউম সবকিছুর জন্য ৫ গুণ বেশি সময় লাগবে। অল্প সময়ের মধ্যে এটিকে আমি পর্দায় তুলে ধরতে পারি না। এটি আমার সবচেয়ে উচ্চাভিলাষী প্রকল্প।’

উল্লেখ্য, দীপিকা এই ছবিটির সহ-প্রযোজক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। ছবিটির অন্যান্য চরিত্রের জন্য অভিনেতা-অভিনেত্রী খোঁজা হচ্ছে। ছবিটি দুই অথবা তিনটি পর্বে তৈরি হবে। প্রথম পর্ব মুক্তি পাবে ২০২১ সালে দেওয়ালিতে।

অন্যান্য ছবির মতো করে মহাভারত বানানো হবে না। প্রডাকশনের স্কেল থেকে শুরু করে বাজেট ও কস্টিউম সবকিছুর জন্য ৫ গুণ বেশি সময় লাগবে। অল্প সময়ের মধ্যে এটিকে আমি পর্দায় তুলে ধরতে পারি না।