এবার বিস্ফোরণের কবলে স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট-৯!

স্যামসাংয়ের গ্যালাক্সি নোট-৭ বিস্ফোরণের বিভীষিকা এখনো মানুষ ভোলেনি, এবার যেন আরেকটি দুঃসংবাদ বয়ে এলো। এবার গ্যালাক্সি নোট-৯ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটল। এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত এক নারী স্যামসাংয়ের বিরুদ্ধে মামলাও করেছেন।

নিউ ইয়র্কে বসবাসকারী রিয়েল এস্টেট এজেন্ট ডিয়ানে চাংগ শীর্ষ স্মার্টফোন কম্পানি স্যামসাংয়ের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেছেন। তাতে অভিযোগ করেছেন এক হাজার ডলারে কেনা তারা অগ্নিরোধক গ্যালাক্সি নোট-৯-এ বিস্ফোরণ ঘটেছে এ মাসের শুরুতে। এ নিয়ে নিউ ইয়র্ক পোস্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, নারীটি তাঁর মামলার আরজিতে দাবি করেছেন, তিনি লিফটে থাকা অবস্থায় তাঁর গ্যালাক্সি নোট-৯ মোবাইল ফোনসেটটি ব্যবহার করছিলেন। হঠাৎ এটি মারাত্মক গরম হয়ে ওঠে। এতে তিনি ফোনসেটটি তাঁর ব্যাগের মধ্যে রেখে দেন। এরপর তিনি একটি আওয়াজ শুনতে পান এবং লক্ষ করেন তাঁর ব্যাগ থেকে ধোঁয়া বেরোচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, ‘আমি আমার ব্যাগ থেকে ফোনসেটটি বের করে ফেলি এবং লিফটের ফ্লোরে রাখি। এ সময় পুড়ে যাওয়া ফোন ধরায় আমার আঙুলও পুড়ে যায়। এমনকি পুরো লিফট ধোঁয়ায় আচ্ছন্ন হয়ে যাওয়ায় আমি আতঙ্কিত হয়ে লিফটের বোতাম টিপতে লাগলাম, কিন্তু ধোঁয়ার কারণে তা ঠিকভাবে দেখতেও পারছিলাম না।’ তিনি বলেন, ‘এরপর আমি লিফট থেকে বের হয়ে ফোনসেটটি রাস্তায় নিক্ষেপ করি; কিন্তু এটি তখনও জ্বলছিল। এ অবস্থায় একজন পথচারী কাপড়ে মুড়িয়ে ফোনসেটটি নিয়ে পানি ভরা বালতিতে ফেলে।’ ঘটনাটিকে অত্যন্ত মর্মান্তিক উল্লেখ করে চাংগ এ জন্য ক্ষতিপূরণ দাবি করেছেন। সেই সঙ্গে ফোনসেটটি ত্রুটিপূর্ণ উল্লেখ করে গ্যালাক্সি নোট-৯ ডিভাইস বাজারে নিষিদ্ধ করার দাবি জানান। যদিও স্যামসাংয়ের মোবাইল বিজনেস সিইও ডিজে কোহ গত মাসে ইনভেসন্টর ম্যাগাজিনকে এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, গ্যালাক্সি নোট-৯-এর ব্যাটারি আগের যেকোনো সময়ের চেয়ে নিরাপদ। এ নিয়ে ব্যবহারকারীদের উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই।

কম্পানিটি জানায়, গ্যালাক্সি নোট-৯ নিয়ে আমরা কোনো ধরনের বিস্ফোরণের অভিযোগ পাইনি। তবে এ ঘটনার বিষয়টি অবশ্যই আমরা তদন্ত করব। সিএনইটি।