ওয়াজ মাহফিলের চাঁদার দ্বন্দ্বে হামলায় সাবেক মেম্বার নিহত


হবিগঞ্জের বানিয়াচঙ্গ উপজেলায় ওয়াজ মাহফিলের চাঁদা নির্ধারণ নিয়ে দ্বন্দ্বের জের ধরে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছে আরো অন্তত ১০ জন।

গতকাল শুক্রবার রাতে পৈলারকান্দি গ্রামে এই ঘটনা জানিয়েছেন বানিয়াচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ রাশেদ মোবারক।

নিহত ওমর আলী (৫০) ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সদস্য (মেম্বার)। তিনি পৈলারকান্দি গ্রামের রাজা মিয়ার ছেলে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে ওসি আজ শনিবার সকালে জানান, প্রতি বছর পৈলারকান্দি গ্রামবাসী ওয়াজ মাহফিলের আয়োজন করে থাকে। এই বছরও ওয়াজ মাহফিল করার প্রস্তুতি নেন এলাকাবাসী। শুক্রবার জুম্মার নামাজের পর গ্রামের মসজিদে বসে চাঁদা সংগ্রহের তালিকা তৈরি করা হয়।

‘তখন লিটন নামের এক কৃষকের নামে পাঁচশ টাকা চাঁদা ধরা হয়। কিন্তু লিটন জানান, তাঁর এই টাকা দেওয়ার সামর্থ্য নেই। এ নিয়ে ওমর আলীর সঙ্গে লিটনের তর্ক-বিতর্ক হয়। এর জের ধরে রাতে দুই পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হন।’

ওসি আরো বলেন, ‘সংঘর্ষে ওমর আলীসহ উভয়পক্ষের বেশ কয়েকজন আহত হন। হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে রাত ১০টার দিকে ওমর আলী মারা যান। সংঘর্ষে জড়িত থাকার অভিযোগে ওবায়দুর রহমান তালুকদার নামের এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ।’

স্থানীয় ইউপি সদস্য সানাউল হক হারিছ দাবি করেন, ওমর আলী নিহতের ঘটনার পর প্রতিপক্ষের একটি দোকানের জিনিসপত্র লুটপাটসহ অন্তত ২০টি ঘরবাড়ি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে।

বানিয়াচং থানা থেকে জানানো হয়েছে, এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এখন পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।