করোনার বিরুদ্ধে লড়তে অ্যাপল-গুগল একজোট

হাতের মোবাইল ফোনটির মালিক নিজের অজান্তেই সম্প্রতি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কোনো ব্যক্তির সংস্পর্শে এসেছেন কিনা সে বিষয়ে নিশ্চিত হওয়ার পথ খুললো সম্প্রতি অ্যাপল ও গুগলের হাত মেলানোর মাধ্যমে।

পরষ্পরের প্রতিদ্বন্দ্বী এ দুই প্রযুক্তি জায়ান্টের এমন ঐক্য বিরল।

বিবিসির প্রতিবেদন বলছে, প্রাথমিকভাবে অ্যাপল ও গুগল এমন সমঝোতায় পৌঁছেছে যার ফলে তৃতীয় পক্ষের কোনো অ্যাপ ডেভেলপার যদি এ লক্ষে অ্যাপ তৈরি করতে চান, আইফোন বা অ্যান্ড্রয়েড ফোন সেজন্য দরকরি তথ্য ওই অ্যাপকে শেয়ার করবে।

পুরো বিষয়টিই মনিটর করা হবে ফোনের ব্লুটুথে জমা থাকা তথ্য ব্যবহার করে। আর এতে যেসব গ্রাহক স্বেচ্ছায় অংশ নেবেন এই প্রযুক্তিতে শুধু তাদের ডেটাই ব্যবহার করা হবে। এতে ব্যবহারকারীর পরিচয় গোপন রাখা হবে বলে একমত হয়েছে প্রতিষ্ঠান দুটি।

প্রতিটি স্মার্টফোনই ব্লুটুথ সংযোগের তথ্য জমা রাখে। পরে আবার সংযোগ পাওয়ার বেলায় ওই তথ্য ব্যবহার করে ফোনগুলো। অ্যাপল ও গুগলের এই সমঝোতার ফলে স্মার্টফোনগুলো সবসময় নজর রাখবে তারা কোন কোন ফোনের ব্লুটুথের কাছাকাছি দীর্ঘক্ষণ অবস্থান করেছেন যা করোনাভাইরাস সংক্রমণের জন্য যথেষ্ট। এই ধারাবাহিক তথ্যাবলীর মধ্যে কোনো ফোনের মালিক যদি কোয়ারেন্টিনে যান বা তার দেহে সংক্রমণ ধরা পরে, তাহলে ফোনের ব্লুটুথে থাকা সংযোগের তথ্য ব্যবহার করে সম্ভাব্য ঝুঁকিতে থাকা অন্য ফোনের মালিকদের সতর্ক করা সম্ভব হবে। সেইসঙ্গে একটি সতর্কবার্তা চলে যাবে প্রথম ফোনটিতেও।

এই প্রযুক্তি কাজ করার পূর্বশর্ত অবশ্য কোয়ারেন্টিনে থাকা বা সংক্রমণের শিকার হওয়া ব্যবহারকারীর তথ্য শেয়ার করার ওপর নির্ভর করবে। উদ্যোগটি সফল হলে বিশ্বের প্রায় তিনশ’ কোটি স্মার্টফোন ব্যবহাকারী এর আওতায় আসবেন।

অ্যাপল এবং গুগল গত দুই সপ্তাহ ধরে বিষয়টি নিয়ে কাজ করলেও শুক্রবারের আগে কেউই বিষয়টি প্রকাশ করেনি।