করোনা প্রতিরোধে বিশ্ব তারকাদের আর্থিক সহযোগিতা

করোনার প্রভাবে অচল এখন পুরোবিশ্ব। বিশ্ব অর্থনীতিতে যার প্রভাব নিয়ে চিন্তিত সবাই। এমন অবস্থায় এগিয়ে আসছেন বিশ্বখ্যাত তারকারা। সরকারিভাবে আর্থিক ফান্ডে সহযোগিতা করছেন অনেকে।

করোনা মহামারি মোকাবিলায় সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি। ক্ষুধার্ত শিশুদের মুখে খাবার তুলে দেওয়ার জন্য ১ মিলিয়ন ডলার দান করেছেন এই অভিনেত্রী। জোলি বলেন, ‘পৃথিবীতে অজস্র মানুষ এই সঙ্কটের সময় খেতে পারবে না, শিশুরা তাদের সঠিক পুষ্টি পাবে না, মানুষের মধ্যে হাহাকার বাড়বে। আমরা যারা তাদের সহযোগিতা করার জন্য ক্ষমতা রাখি তাদের এগিয়ে আসতে বলবো। এই পৃথিবীকে আমাদেরই বাঁচাতে হবে। তাই সতর্ক ও সচেতনতার পাশাপাশি এই সময়ে আমাদের আর্থিক ফান্ড প্রয়োজন।’

মার্কিন পপ তারকা রিয়ান্না মার্কিন একটি ফুড ব্যাংকে ৫ মিলিয়ন ডলার দান করেছেন। খাবারের অভাবে যেন কেউ মারা না যায় সেই প্রচেষ্টা থেকে রিয়ান্নার এই দান। তিনি বলেন, ‘একটা নিষ্ঠুর সময় পার করছি আমরা। প্রকৃতি যেন তার প্রতিশোধ নিচ্ছে। পুরো পৃথিবীর সবাইকে এক হয়ে এই সময়টা মোকাবেলা করতে হবে।’

হলিউড তারকা আর্নল্ড শোয়াজনেগার বিশ্ব সঙ্কটের এই সময়ে মেডিকেল সরঞ্জাম কেনার জন্য ৫ মিলিয়ন ডলার দান করেছেন। তিনি বলেন, ‘খুব সতর্ক থাকার সময় এখন। দূরত্ব রেখে চলতে হবে এই সময়। ধৈর্য ধরে মোকাবেলা করতে হবে এই সময়টাকে। প্রকৃতির শাস্তিগুলো এমনই হয়। অস্থির এই পৃথিবীর সবকিছুই স্থির এখন। আবারও হয়তো নতুন এক পৃথিবী পেতে যাচ্ছি আমরা।’

বলিউড তারকাদের মধ্যেও অনেকে এগিয়ে এসেছেন সাহায্য করতে। হূত্বিক রোশন করোনা প্রতিরোধক মাস্ক তৈরিতে এগিয়ে এসেছেন। পাশাপাশি সরকারি ফান্ডে অর্থ দান করা করেছেন। হূত্বিক বলেন, ‘আমি যতটুকু পারছি এগিয়ে এসেছি। সমস্যাটা এত বড় যে একা কিছু করা সম্ভব নয়। তাই আমি আমার সকল সহকর্মীকে এগিয়ে আসার অনুরোধ করবো। সবাই এক হলে এই ভাইরাস প্রতিরোধ করতে পারবো।’

তেলেগু তারকা প্রভাস সরকারি তহবিলে ৪ কোটি রুপি দান করেছেন। সম্প্রতি এমনটাই জানা যায়। প্রভাস বলেন, ‘সবাইকে নিজ জায়গা থেকে সতর্ক হতে হবে। কারণ আতঙ্কের বাইরে আমরা কেউ না। সবাই হলে এই সমস্যা দ্রুত মোকাবেলা সম্ভব। সরকার আর তারকাদের বাইরে সাধারণ মানুষদেরও এগিয়ে আসতে হবে এই সঙ্কটময় সময়ে। আশা করি সবাই এক হয়ে কাজ করবো।’