খালেদা জিয়ার সুবিধার্থে কেরানীগঞ্জে আদালত স্থাপনের সিদ্ধান্ত: তথ্যমন্ত্রী


তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়ার কষ্ট লাঘব করতে ও তার সুবিধার্থে কেরানীগঞ্জের কারাগারে আদালত স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এতে তো বিএনপির খুশি হওয়ার কথা। কারণ বেগম জিয়াকে বারবার কারাগার থেকে আদালতে আসতে হবে না। তাঁর শারীরিক কষ্ট হবে না। এ ছাড়া নিরাপত্তারও একটি বিষয় আছে।

আজ বুধবার প্রেস ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ (পিআইবি)র সেমিনার হলে পিআইবি-এটুআই গণমাধ্যম পুরস্কার ২০১৯ প্রদান অনুষ্ঠান শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, কেরাণীগঞ্জে আদালত স্থাপনের সঙ্গে সাংবিধানিক কোনো প্রসঙ্গ নেই। এটা সাংবিধানিক কোনো বিষয়ও নয়। এটি প্রশাসনিক বিষয়। সরকারের দায়িত্ব হচ্ছে আইন-আদালতকে সহযোগিতা করা। আইন ও বিধান অনুযায়ী কেরাণীগঞ্জে আদালত স্থাপন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আদালত স্থাপন করা একটি কথা, আরেকটি হচ্ছে বিচার কার্যক্রম। বিচারিক প্রক্রিয়ার মাধ্যমে বিচারান্তে কি করবেন, সেটি বিচারকের বিষয়। কিন্তু সরকারের দায়িত্ব হচ্ছে বিচার কার্যক্রমকে সহায়তা করা। সেখানে আসামিদের সুবিধার্থে, বেগম জিয়ার সুবিধার্থে ও নিরাপত্তা বিবেচনায় কেরানীগঞ্জে আলাদত স্থাপন করা হয়েছে।

পিআইবির পরিচালনা বোর্ডের চেয়ারম্যান আবেদ খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, তথ্য সচিব আবদুল মালেক, তথ্য ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সচিব, এন এম জিয়াউল আলম, এটুআই প্রকল্পেরপলিসি অ্যাডভাইজার আনীর চৌধুরী প্রমুখ।