গালাগাল করতে করতে দ্রাবিড়কে মারতে যান শ্রীশান্ত!


স্পট ফিক্সিং করে নিষিদ্ধ হওয়া ভারতীয় পেসার শান্তাকুমারন শ্রীশান্ত মাঠের খেলায় না থাকলেও নিয়মিতই খবরের শিরোনামে থাকেন।সদ্য প্রকাশিত বই ‘দ্য বেয়ারফুট কোচ’ এ গৌতম গম্ভীরের নেতিবাচক মানসিকতা নিয়ে বিস্ফোরক তথ্য ফাঁস করেছিলেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক মনোবিদ প্যাডি আপটন। যা নিয়ে বেশ বিতর্ক হয়েছে। এবার রাজস্থান রয়্যালসের ড্রেসিংরুমের গোপন বিতর্ক উঠে এল তার বই থেকে।

২০১৩ আইপিএলের সময়ের এই ঘটনা উঠে এসেছে প্যাডি আপটনের নতুন বইয়ে। আপটন তার বইয়ে লিখেছেন, রেগে গিয়ে কীভাবে রাহুল দ্রাবিড়কে কুৎসিত গালিগালাজ করেছিলেন শ্রীশান্ত। তেড়ে গিয়েছিলেন আইপিএলের দল রাজস্থান রয়্যালসের সাবেক অধিনায়ক দ্রাবিড়ের দিকে। ‘দ্য ওয়াল’ খ্যাত রাহুল দ্রাবিড় আজীবন শান্ত এবং ভদ্র স্বভাবের জন্য গোটা ক্রিকেটবিশ্বে সমাদৃত হয়েছেন এবং এখনও তাকে সম্মানের চোখে দেখে ক্রিকেটপ্রেমীরা।

আপটন লিখেছেন, টিম থেকে বাদ পড়ায় ‘ক্ষুব্ধ’ ছিলেন শ্রীশান্ত। কুৎসিত ভাষায় গালিগালাজ করেছিলেন আপটন ও দ্রাবিড়কে। সাবেক মনোবিদের কথায়, ‘আমাদের যে ভাষায় ও আক্রমণ করেছিল, তা সেদিন বুঝতে পারিনি। আজ বুঝতে পারি।’ গালি দিতে দিতে দ্রাবিড়ের দিকে তেড়েও গিয়েছিলেন শ্রীশান্ত। এই ঘটনার জন্য সাসপেন্ড করা হয়েছিল কেরালার পেসারকে। যদিও ২৪ ঘণ্টা পরই বেটিংয়ের অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন শ্রীশান্ত।

যদিও আপটনের বইয়ের তথ্য সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন শ্রীশান্ত। ‘ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস’কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সাবেক এই তারকা পেসার জানিয়েছেন, ‘ও একটা বড় মিথ্যাবাদী। আমি কখনই এমন কিছু বলিনি বা করিনি।’ তবে দায় অস্বীকার করে পার পাচ্ছেন না শ্রীশান্ত। যতসব কাণ্ড তিনি ক্যারিয়ারে ঘটিয়েছেন, তাতে তার ওপর বিশ্বাস হারিয়েছে বেশিরভাগ ভক্তরা।