চলচ্চিত্র, ক্রীড়া ও বিজ্ঞানপ্রেমীর জন্য সুশান্তের নামে ফাউন্ডেশন

বলিউড তারকা সুশান্ত সিং রাজপুতের আকস্মিক মৃত্যুর পর তাঁর ব্যক্তিত্ব, অভিনয়ের প্রশংসা করছেন অনেকেই। কেউ বা তাঁর স্মৃতি ধরে রাখার তাগাদাও দিয়েছেন। আর এবার সে লক্ষ্যে ও তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে সুশান্ত সিং রাজপুত ফাউন্ডেশন (এসএসআরএফ) প্রতিষ্ঠা করতে যাচ্ছে প্রয়াতের পরিবার। চলচ্চিত্র, ক্রীড়া ও বিজ্ঞানের প্রতি প্রবল ভালোবাসা ছিল সুশান্তের। আর এই তিন ক্ষেত্রে প্রতিভাবানদের সহযোগিতা করবে এই ফাউন্ডেশন।

ভারতের টেলিভিশন চ্যানেল এনডিটিভির অনলাইন সংস্করণের প্রতিবেদনে জানা যায়, সুশান্তের পরিবার সম্প্রতি একটি বিবৃতি প্রকাশ করে। সেখানে জানানো হয়, ওই অভিনেতার শৈশবের পাটনার বাড়িটি স্মৃতিসৌধে রূপান্তরিত হবে, যার মধ্যে তাঁর ব্যক্তিগত জিনিসপত্র থাকবে। সেগুলোর মধ্যে রয়েছে তাঁর প্রিয় বই এবং তাঁর সবচেয়ে মূল্যবান বস্তু দুরবিনও।

অভিনেতা ছাড়াও সুশান্ত সিং রাজপুত ছিলেন বিজ্ঞানমনস্ক, কবিতার ভক্ত, অপেশাদার জ্যোতির্বিদ, ক্রীড়ামোদি। এ ছাড়া গিটার বাজাতে পছন্দ করতেন তিনি। গত ১৪ জুন মুম্বাইয়ের বাসভবনে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায় সুশান্তকে। তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে পুলিশ জানিয়েছে। এ বিষয়ে বিস্তারিত তদন্ত চালাচ্ছে পুলিশ।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘বিশ্বের সুশান্ত সিং রাজপুত কেবল আমাদের কাছে গুলশান ছিলেন। তিনি ছিলেন মুক্তমনা, বাকপটু এবং অবিশ্বাস্য মেধাবী। সবকিছু নিয়ে কৌতূহল ছিল তাঁর। তিনি কোনো বাধা ছাড়াই স্বপ্ন দেখতেন এবং সিংহের মতো হৃদয় নিয়ে সেই স্বপ্নগুলো তাড়া করতেন। তিনি উদারভাবে হাসতেন। পরিবারের গর্ব ও অনুপ্রেরণা ছিলেন তিনি। দুরবিনটি ছিল তাঁর কাছে সর্বাধিক মূল্যবান বস্তু, যার মাধ্যমে তিনি তারার প্রতি আকৃষ্ট হয়েছিলেন।’

এতে আরো বলা হয়, ‘আমরা সহজে মেনে নিতে পারছি না, আমরা তাঁর সহজ হাসি আর শুনতে পাব না। আমরা তাঁর ঝলমলে চোখ আবার দেখতে পাব না, আবার বিজ্ঞান সম্পর্কে তাঁর অন্তহীন অভিযান শুনতে পাব না। তাঁর ক্ষতি পরিবারে একটি স্থায়ী এবং গভীর শূন্যতা তৈরি করেছে, যা কখনো পূরণ হবে না। তিনি সত্যিই তাঁর প্রত্যেক ভক্তকে ভালোবাসতেন এবং লালন করতেন। আমাদের গুলশানকে এত ভালোবাসায় ভরিয়ে দেওয়ার জন্য আমরা আপনাদের ধন্যবাদ জানাই।’

বিবৃতির শেষাংশে বলা হয়, ‘তাঁর স্মৃতি ও উত্তরাধিকারকে সম্মান জানাতে, পরিবার তাঁর প্রিয় সিনেমা, বিজ্ঞান এবং ক্রীড়াক্ষেত্রের তরুণ প্রতিভাবানদের সাহায্য করার জন্য সুশান্ত সিং রাজপুত ফাউন্ডেশন (এসএসআরএফ) প্রতিষ্ঠার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। পাটনার রাজীবনগরে তাঁর শৈশবের বাড়ি স্মৃতিসৌধে পরিণত হবে। আমরা তাঁর ব্যক্তিগত স্মৃতিচিহ্ন এবং জিনিসপত্রগুলো সেখানে রাখব, যাতে হাজার হাজার বই, তাঁর দুরবিন, ফ্লাইট-সিমুলেটর ইত্যাদি রয়েছে তাঁর ভক্ত ও অনুরাগীদের জন্য। এখন থেকে আমরা তাঁর ইনস্টাগ্রাম, টুইটার ও ফেসবুক পেজ তাঁর স্মৃতিকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য উত্তরাধিকার অ্যাকাউন্ট হিসেবে রাখতে চাইছি।’

সুশান্ত সিং রাজপুতের শেষ ছবি ‘দিল বেচারা’ আগামী ২৪ জুলাই ডিজনি ও হটস্টারে মুক্তি পাবে।