চাই একজন অলরাউন্ডার; সৌম্য না মেহেদী?

114403soumya_kalerkantho_pic
পিচ দেখেই পরিস্কার বোঝা যায় তা পেসারদের স্বর্গ। বৃহস্পতিবার টাইগার একাদশে তিন পেসার খেলানো এক কথায় নিশ্চিত।

টেস্ট দলের বহরে ইতোমধ্যেই আছে চার পেসার রুবেল হোসেন, তাসকিন আহমেদ, শুভাশিস রায় ও কামরুল ইসলাম রাব্বি। ছোট সংস্করণের ক্রিকেটে ভালো বোলিং করেছেন রুবেল। কিন্তু ব্যাটিংয়ের দিক দিয়ে পিছিয়ে আছেন অন্য তিনজনের মতোই। তাই একজন অলরাউন্ডারের দরকার হয়ে পড়েছে ভীষণ।

ঘূর্ণিবলে যথারীতি বাংলাদেশের একমাত্র আস্থা সাকিব আল হাসান। এখনও তার যোগ্য সঙ্গী হিসেবে কাউকে স্থায়ী করা যাচ্ছে না। মেহেদী হাসান মিরাজ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অভিষেকে চমক দেখিয়েছিলেন। কিন্তু ব্যাটিংয়ে তেমন কিছু করে দেখাতে পারেননি। অন্যদিকে, নিউজিল্যান্ডের উইকেটে স্পিন দিয়ে প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করার মত ক্ষমতা আর অভিজ্ঞতা একমাত্র সাকিব ছাড়া আর কারও তেমন নেই। বেসিন রিজার্ভে অনুষ্ঠিত শেষ টেস্টে বল হাতে ঘূর্ণি দেখিয়েছিলেন কিউই স্পিনার নাথান লায়ন। তাই মেহেদী মিরজাকে নিয়ে চিন্তায় আছে টিম ম্যানেজম্যান্ট।

একজন বাড়তি স্পিনার খেলানোর চিন্তার পাশাপাশি একজন ব্যাটসম্যান কাম অকেশনাল পেসার খেলানোর চিন্তাও আছে টিম ম্যানেজম্যান্টের। সেক্ষেত্রে একমাত্র যোগ্য এবং একমাত্র পছন্দ সৌম্য সরকার। অফ ফর্ম কাটিয়ে শেষ দুই টি-টোয়েন্টিতে অনেকটাই নিজের স্বরুপে ফিরেছেন তিনি। পেসারদের সামলেছেন তার স্বভাবসুলভ আক্রমণে। মিডিয়াম পেসটাও ভালোই করেন। তাই সৌম্যর একাদশে স্থান পাওয়ার জোরালো সম্ভাবনা দেখছেন অনেকেই। আট নম্বরে ব্যাট করতে নেমে দলকে বড় রান এনে দেওয়ার ক্ষমতা তার রয়েছে। সেইসঙ্গে বারবার আলোচনায় এসেছে তার ম্যাচ উইনিং ক্যাপাসিটির কথা।

হার ঠেকাতে এবং কমপক্ষে ড্র করতে ম্যাচটিকে পঞ্চম দিনে নিয়ে যেতে হবে। এর কোনো বিকল্প নেই। এজন্য দলে বোলারের পাশাপাশি একজন ব্যাটসম্যান ভীষণ জরুরী। এখন দেখার বিষয় সৌম্য-মেহেদীর মধ্যে কে নির্বাচকদের মন জয় করতে পারেন।