চাকরি না পেয়ে ফেসবুক লাইভে এসে অাত্মহত্যা

ভারতের আগ্রায় চাকরি না পেয়ে ফেসবুক লাইভে এসে অাত্মহত্যা করেছে এক যুবক। ৫ বারের চেষ্টাতেও সরকারি চাকুরিতে ঢুকতে পারেনি সে। সেই দুঃখে আত্মঘাতী হয়েছে ২৪ বছর বয়সের ওই যুবক।

জানা যায়, নিউ আগ্রার শান্তিনগরের বাসিন্দা মুন্না কুমার BSc গ্র্যাজুয়েট। লাইভে আত্মহত্যা করার আগে বুধবার সকালে তিনি প্রথমে ফেসবুকে একটি ১.০৯ মিনিটের ভিডিও পোস্ট করেন। তাতে ছিল তাঁর যাবতীয় স্বীকারোক্তি। এর পর ফেসবুক লাইভ করে আত্মহত্যা করেন তিনি।

সেই লাইভ দেখেছেন ২,৭৫০ জন। তবে কেউ তাঁকে আটকানোর কোনও চেষ্টা করেননি। ৬ পাতার একটি সুইসাইড নোটও রেখে গিয়েছেন মুন্না। পাঁচবার সেনাবাহিনীর প্রবেশিকা পরীক্ষায় অনুত্তীর্ণ হওয়ার জন্য এবং বাবা-মায়ের আশা পূরণ করতে পারেননি বলে নিজেকে দোষী সাব্যস্ত করে নোটটি লিখেছেন তিনি।

মুন্নার ছোট ভাই বিকাশ জানিয়েছেন, ‘দাদা ভগত্‍‌ সিং-এর দ্বারা দারুণ অনুপ্রাণিত ছিল। ভারতীয় সেনাবাহিনীতে যুক্ত হওয়ার স্বপ্ন দেখতো। আত্মহত্যার কয়েক ঘণ্টা আগেও ও একেবারে স্বাভাবিক ছিল। আমরা একসঙ্গে রাতের খাবারও খেলাম। ও যে আত্মহত্যা করবে, তা পরিবারের কেউই বুঝতে পারেননি।’ মুন্নার বাবা পেশায় গাড়িচালক। ছেলের হতাশা কাটাতে দিনকয়েক আগেই তাঁকে একটি মুদি দোকান খুলে দিয়েছিলেন তাঁর বাবা।