চেলসি-আয়াক্স ম্যাচে ৮ গোলের বন্যা

আয়াক্সের বিপক্ষে ৪-১ ব্যবধানে পিছিয়ে থেকেও দুর্দান্ত ড্রয়ে খেলা শেষ করল চেলসি। যা অবিশ্বাস্য না বললে ভুল হবে। কারণ শেষ পর্যন্ত ৪-৪ গোলের ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে দুই দলই।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের ‘এইচ’ গ্রুপের এই ম্যাচে ভুল দিয়েই খেলা শুরু করে চেলসি। মাত্র দুই মিনিটের মাথায় আত্মঘাতী গোল করে আয়াক্সকে এগিয়ে দেন চেলসির ট্যামি আব্রাহাম। তবে এর দুই মিনিট পরেই পেনাল্টি থেকে গোল করে দলকে সমতায় ফেরান চেলসির জর্জিনহো।

চেলসি গোল পরিশোধ করলেও এগিয়ে যাওয়ার কথা ভুলেনি আয়াক্স। ২০ মিনিটে দ্বিতীয়বার এগিয়ে যায় তারা। দারুণ এক গোলে অতিথিদের লিড এনে দেন মরোক্কান ফরোয়ার্ড হাকিম জায়েখ।

বিরতিতে যাওয়ার আগে ৩৫ মিনিটে আরও একটি ফ্রি-কিক থেকে ব্যবধান আরো বাড়ায় আয়াক্স। জিয়াখের নেওয়া শট প্রতিহত করতে ব্যর্থ হন চেলসি গোলকিপার কেপা। ফলে বল তার মুখে লেগে জড়িয়ে যায় জালে।

দ্বিতীয়ার্ধের ৫৫ মিনিটে গোল করে দলকে ৪-১ ব্যবধানে এগিয়ে দেন আয়াক্সের দনি ফন দে বেক। কিন্তু এর আট মিনিট পর ব্যবধান কমান চেলসি সিজার আসপিলিকুয়েতা। তখন স্কোরলাইন দাড়ায় ৪-২।

এদিকে ব্যবধান কমানোর কিছুক্ষণ পরই হলুদকার্ড দেখে লালকার্ড পান আয়াক্সের ডেলি ব্লিন্ড। ফলে ৯ জনের দলে পরিণত হয় ডাচরা। অপরদিকে ব্লিন্ড ইস্যুতে রেফারির সঙ্গে বিতর্কে জড়িয়ে লালকার্ড দেখেন জোয়েল ভেল্টম্যানও।

খেলার শেষ দিকে দলকে আরো একবার খেলায় ফিরিয়ে আনেন চেলসির জর্জিনহো। ৭১ মিনিটে নিজের দ্বিতীয় এবং দলের হয়ে তৃতীয় গোল করেন তিনি। অবশ্য তার এই গোলটি পেনাল্টি থেকে আসে।

দুই মিনিট পর আয়াক্সের জালে আরও একবার বল জড়ান অ্যাজপিলিকুয়েটা। কিন্তু হ্যান্ডবলের কারণে সে গোল বাতিল করেন রেফারি। তবে ৭৪ মিনিটে দলকে সমতায় ফেরান চেলসি রিস জেমস। শেষ ১৫ মিনিটে জয়ের জন্য সব রকম চেষ্টা চালায় চেলসি। তবে নয়জন নিয়েও শেষ পর্যন্ত ড্র করে মাঠ ছাড়ে আয়াক্স।