জমা পানিতে এডিসের লার্ভা, কলকাতায় জমির মালিককে ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা


ফাঁকা জমিতে আবর্জনা জমা জলে মশার লার্ভা পাওয়ায় জমির মালিককে ৭৫ হাজার টাকা জরিমানার নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা পৌর আদালত। গত শুক্রবার পৌর আদালতের মুখ্য বিচারক প্রদীপকুমার অধিকারী তার রায়ে জানান, অভিযুক্তকে ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা দিতে হবে। জরিমানা অনাদায়ে ওই ব্যক্তিকে সাত দিনের কারাদণ্ডের নির্দেশ দেন তিনি। আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে অবশ্য উচ্চ আদালতে যাওয়ার আবেদন জানাননি অভিযুক্ত ব্যক্তি। শুক্রবারই তিনি আদালতে জরিমানার টাকা জমা দিয়ে মুক্তি পান।

আদালতের কর্মীরা জানাচ্ছেন, মুখ্য বিচারকের ঘরে এটাই এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ টাকার জরিমানা। এর আগে ২৫ হাজার থেকে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা করা হয়েছে। এই মামলায় সর্বাধিক এক লাখ টাকা পর্যন্ত জরিমানা করা যেতে পারে বলে আইনজীবীরা জানাচ্ছেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, গড়ফা থানা এলাকার পূর্বাচল মেন রোডের একটি ফাঁকা জমিতে আবর্জনার স্তূপ দেখা যায়। খবর পেয়ে সেখানে সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে যান কলকাতা পৌরসভার কর্মকর্তারা। সেখানে গিয়ে তারা আবর্জনার মধ্যে জমে থাকা পানিতে মশার লার্ভা পান। খোঁজ করে জানা যায়, জমির মালিকের নাম নিলয় পাণ্ডে। তাকে সাত দিনের মধ্যে আবর্জনা এবং জমা জল সরানোর জন্য নোটিশ পাঠায় পৌরসভা। কিন্তু সেই নোটিস পেয়েও আবর্জনা সরাননি তিনি। এরপর চলতি বছরের মে মাসে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে কলকাতা পৌর আদালতে মামলা করেন পুরসভার মেডিক্যাল অফিসার।

আদালতে অভিযুক্ত জানান, এই আবর্জনা তিনি জড়ো করেননি। তার প্রতিবেশিরা এই স্তুপ তৈরি করেছে। আদালত অবশ্য এই যুক্তি মানতে চায়নি। আদালত স্পষ্ট জানিয়ে দেয়, জমির মালিক এই দায় এড়াতে পারেন না। এর পরই তাকে দোষী সাব্যস্ত করে আদালত।

এদিকে শহরের বিভিন্ন প্রান্তে মশা নিয়ন্ত্রণে নজরদারি চালাচ্ছে পৌরসভা। সোমবার ১৩১ নম্বর ওয়ার্ডে মশা নিয়ন্ত্রণের কাজে পৌরসভার পক্ষ থেকে মোট ১৩৩২টি বাড়ি পরিদর্শন করা হয়েছে। সেখানে ৩৮৬৪টি কন্টেনার পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৪০টি কন্টেনারে মশার লার্ভা ও পিউপা পাওয়া গেছে বলে পৌরকর্মীরা জানিয়েছেন।