‘জীবন থেকে সিনেমাকে কখনো আলাদা করে দেখিনি’


টলিউডের দর্শকপ্রিয় অভিনেতা প্রসেনজিৎ চ্যাটার্জি। ১৯৬৮ সালে তার বাবা বিশ্বজিৎ পরিচালিত ‘ছোট্ট জিজ্ঞাসা’ চলচ্চিত্রে প্রথম শিশুশিল্পী হিসেবে অভিনয় করেন। ১৯৮৩ সালে ‘দুটি পাতা’ সিনেমায় প্রথম নায়কের ভূমিকায় রুপালি পর্দায় হাজির হন। এরপর অসংখ্য দর্শকপ্রিয় চলচ্চিত্র উপহার দিয়েছেন তিনি।

অভিনয় ক্যারিয়ারে পেয়েছেন যশ-খ্যাতি। টলিউডে তিনি ‘বুম্বা দা’ নামেও পরিচিত। ৫৬ বছর বয়সি এই অভিনেতা এখনো নিয়মিত চলচ্চিত্রে কাজ করে যাচ্ছেন। শুধু তাই নয়, রীতিমতো ব্যস্ত সময় পার করছেন তিনি।

সম্প্রতি ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন প্রসেনজিৎ। এ সময় প্রশ্ন করা হয় অভিনেতা ও সুপারস্টার প্রসেনজিৎ প্রচন্ড ব্যস্ত। এত ব্যস্ততার মধ্যে ব্যক্তি প্রসেনজিৎ কেমন আছেন?

জবাবে প্রসেনজিৎ বলেন, ‘আমার গোটা জীবন এবং প্রতি দিনের যে যাপন, তা সম্পূর্ণভাবে সিনেমা সম্পর্কিত। গত পঁয়ত্রিশ বছর ধরে আমি এই কাজেই ডুবে রয়েছি। এর থেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ আমার কাছে আর কিছুই নেই। তবে দীর্ঘদিন ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে থাকার ফলে, এই মুহূর্তে এই ইন্ডাস্ট্রিতে আমার ভূমিকাটা অনেকটা বড় দাদার মতো হয়ে গিয়েছে। ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে যুক্ত প্রত্যেকেই আমাকে সেই জায়গাটা দেয়। একটা ইন্ডাস্ট্রি চলতে থাকলে সেখানে কিছু সমস্যা আসবে। সব ইন্ডাস্ট্রিতেই ব্যাপারটা থাকে। আমাদের এখানেও সেটা রয়েছে। সমস্যাগুলো যেমন শুনতে হয়, তেমনি সেই সমস্যার সমাধানও আমাকে করতে হয়। সারাদিনের ভয়ঙ্কর ব্যস্ততার পর এগুলো নিয়েও বসতে হয়। সেটা রাত দশটা বা এগারোটার সময়। এটাকেও আমি নিজের দায়িত্ব বলেই মনে করি।

তার কারণ, এই ইন্ডাস্ট্রিকে আমি আমার পরিবার বলেই মনে করি। ইন্ডাস্ট্রির মানুষগুলো, অভিনেতারা, টেকনিশিয়ানরা সকলেই আমার সেই পরিবারেরই অংশ। এসব সমস্যা সমাধানের পর আমি বসি একটা সিনেমা দেখতে। প্রত্যেকদিন অন্তত একটা সিনেমা না দেখলে আমার অস্বস্তি লাগে। এটা আমার দীর্ঘদিনের অভ্যাস। এই যে পুরো প্রসেস-এখানে কোনো না কোনোভাবে সিনেমাটা রয়েই গেছে। জীবন থেকে সিনেমাকে কখনো আলাদা করে দেখিনি।ব্যক্তি প্রসেনজিৎ সিনেমার মধ্য দিয়ে সিনেমাকে সঙ্গে নিয়েই ভালো আছেন।’

প্রসেনজিৎ অভিনীত পরবর্তী সিনেমা ‘কিশোর কুমার জুনিয়র’। এতে স্বামী-স্ত্রীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন প্রসেনজিৎ-অপরাজিতা আঢ্যে। এটি পরিচালনা করেছেন কৌশিক গাঙ্গুলি। আগামী ১২ অক্টোবর সিনেমাটি মুক্তির কথা রয়েছে। বর্তমানে এ সিনেমার প্রচার নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রসেনজিৎ।