তৃতীয় হওয়ার লড়াইয়ে আজ মুখোমুখি ইংল্যান্ড-বেলজিয়াম


এই দুটি দল ফাইনাল খেলতে পারত। কিন্তু হয়নি। ভাগ্য তাদের ফাইনালে স্থান দেয়নি। বেলজিয়ামকে ১-০ গোলে হারিয়ে ফ্রান্স ও ইংল্যান্ডকে ২-১ গোলে হারিয়ে ক্রোয়েশিয়া জায়গা করে নিয়েছে স্বপ্নের ফাইনালে। আগামীকাল রোববার শিরোপা জয়ের লক্ষ্যে মাঠে নামবে দল দুটি। তার আগে আজ বাংলাদেশ সময় ৮টায় তৃতীয় হওয়ার লক্ষ্যে মুখোমুখি হবে বেলজিয়াম ও ইংল্যান্ড। ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে নাগরিক টিভি, মাছরাঙা টিভি ও সনি টেন-২।

গ্রুপপর্বে একই গ্রুপে ছিল ইংল্যান্ড ও বেলজিয়াম। শেষ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল তারা। উভয়েই গ্রুপ সেরা না হওয়ার জন্য ম্যারমেরে ম্যাচ খেলেছিল। শেষ পর্যন্ত বেলজিয়াম অনিচ্ছাকৃতভাবে ১-০ গোলে জিতে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে শেষ ষোলোতে উঠেছিল। আর রানার্স-আপ হয়ে ইংল্যান্ড জায়গা করে নিয়েছিল নকআউট পর্বে।

ব্রাজিলের বিপক্ষে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করে ৩২ বছর পর সেমিফাইনালে উঠেছিল বেলজিয়াম। স্বপ্ন ছিল প্রথমবারের মতো ফাইনালে ওঠার। কিন্তু পথ আগলে দাঁড়িয়ে ছিল ফ্রান্স। তাদের পথ থেকে সরিয়ে দিতে পারেনি রেড ডেভিলসরা। ১-০ ব্যবধানে হেরে স্বপ্নের সলিল সমাধি হয়। এদিকে ৫২ বছর পর ফাইনালে যাওয়ার সুযোগ ছিল ফাইনাল খেলার খেলার। কিন্তু সেটা আর হয়ে ওঠেনি। অপেক্ষার পালা বাড়িয়ে সেমিফাইনাল থেকেই বিদায় নিয়েছে তারা।

ইংল্যান্ড ও বেলজিয়াম এর আগেও বিশ্বকাপের তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচ খেলেছে। ১৯৮৬ বিশ্বকাপে বেলজিয়াম ফ্রান্সের কাছে হেরে চতুর্থ হয়েছিল। অন্যদিকে ১৯৯০ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ড ২-১ গোলে ইতালির কাছে হেরে চতুর্থ হয়েছিল। এবার অবশ্য দুই দলের সামনে তৃতীয় হওয়ার সুযোগ। এবার অবশ্য একটি দলের তৃতীয় হওয়ার আক্ষেপ ঘুচবে।

আজকের ম্যাচটি কেবল ইংল্যান্ড ও বেলজিয়ামের লড়াই নয়, লড়াইটা রোমেলু লুকাকু ও হ্যারি কেনেরও। গোল্ডেন বুট জয়ের দৌড়ে আছেন দুজন। কেনের গোল ৬টি। লুকাকুর ৪টি। আজ দুটি গোল করতে পারলে হ্যার কেনকে ছুঁতে পারবেন লুকাকু। আর হ্যাটট্রিক করলে ছাড়িয়ে যাবেন ইংলিশ ফরোয়ার্ডকে। জিতে যেতে পারেন গোল্ডেন বুটও। সেটা যদি সম্ভব না হয় এবং হ্যারি কেন গোলের দেখা পান তাহলে ১৯৮৬ সালের পর দ্বিতীয় কোনো ইংলিশ ফুটবলার হিসেবে গোল্ডেন বুট জয়ের নজির স্থাপন করবেন কেন। তার আগে ১৯৮৬ সালে কিংবদন্তি গ্যারি লিনেকার গোল্ডেন বুট জিতেছিলেন।