দেশের চলমান উন্নয়নযাত্রা কেউ থামাতে পারবে না: প্রধানমন্ত্রী


উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে উত্তরণের সুযোগ গ্রহণ করে ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের প্রতি রপ্তানি বাণিজ্য বৃদ্ধিতে তাদের কর্মতৎপরতা আরো জোরদার করার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

গতকাল রবিবার সকালে রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো আয়োজিত ‘জাতীয় রপ্তানি ট্রফি ২০১৫-১৬ বিতরণ’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে প্রধানমন্ত্রী এ আহ্বান জানান।

ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে শেখ হাসিনা বলেন, ‘অনুরোধ করব, আপনারা দেশ-বিদেশে ঘোরেন, আপনারাও খুঁজে বের করেন কোন দেশের কোন পণ্যটা আমাদের দেশে উৎপাদন করে সেটা রপ্তানি করতে পারি। অর্থাৎ বাজারটা খুঁজে নেওয়া বা পণ্যটাকে আবিষ্কার করা বা তৈরি করা, সেটাও কিন্তু আপনাদের একটা দায়িত্ব।’

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘যদি কোনো রকম সহযোগিতা লাগে, অবশ্যই সরকার হিসেবে আমরা করব। যদিও সময় এখন সীমিত। আগামীতে ইলেকশন, কী হবে বলতে পারি না। কাজেই যতক্ষণ আছি ততক্ষণ যা যা প্রয়োজন সেটা করে দিতে পারব, সেই কথা দিতে পারি।’

দেশের উন্নয়নের প্রসঙ্গ টেনে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা একটা সিস্টেমে নিয়ে এসেছি, যে-ই আসুক আমার মনে হয় এরপর আর কেউ বাধা দিতে পারবে না। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে। ব্যবসা-বাণিজ্যের সম্প্রসারণে যে সুযোগটা আমরা তৈরি করে দিয়েছি, সেটা কাজে লাগিয়ে আপনারা দেশকে এগিয়ে নিতে পারবেন।’

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যের সম্প্রসারণে নেওয়া বিভিন্ন উদ্যোগের কথা তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ‘আপনাদের বিদ্যুতের সমস্যা, গ্যাসের সমস্যা ছিল। এরই মধ্যে আমরা এলএনজি আমদানি শুরু করে দিয়েছি। এরই মধ্যে ফ্লোটিং এলএনজি টার্মিনাল করে দেওয়া হয়েছে। দ্বিতীয়টাও আসবে। কিন্তু এখন সিদ্ধান্ত নিয়েছি ল্যান্ড বেইজ এলএনজি টার্মিনাল করে দেব, যাতে গ্যাসের কোনো সমস্যা কোথাও না থাকে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘একটা শিল্প করতে যা যা লাগে সেগুলো যাতে পূরণ করা যায় সে জন্য আমরা পদক্ষেপ নিচ্ছি। সেই সঙ্গে নতুন বাজার খুঁজে নিয়ে ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়াব, সেই চেষ্টা করে যাচ্ছি।’ তিনি বলেন, ‘শুধু এইটুকুই বলব, আমাদের অর্থনীতি যথেষ্ট মজবুত। আমরা আমাদের যে উন্নয়ন প্রকল্প, তার ৯০ শতাংশ নিজস্ব অর্থায়নে করার সক্ষমতা অর্জন করেছি। উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। উন্নত দেশের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আমাদের চলতে হবে এবং বাংলাদেশকে আমরা উন্নত, সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। এই দক্ষিণ এশিয়ার উন্নত দেশ হবে বাংলাদেশ। সেই পরিকল্পনা নিয়েই আমরা এগিয়ে যাচ্ছি।’