নবায়নযোগ্য প্লাস্টিক ব্যবহারের অঙ্গীকার গুগলের


গ্রাহককে হার্ডওয়্যার পণ্য সরবরাহে আগামি বছর থেকে কার্বন নির্গমন কমিয়ে শুণ্যে আনার অঙ্গীকার করেছে গুগল। পাশাপাশি, ২০২২ সালের মধ্যে সব পণ্যে নবায়নযোগ্য প্লাস্টিক ব্যবহার করা হবে বলেও সোমবার জানিয়েছে সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট মার্কিন প্রতিষ্ঠানটি।

পরিবেশের ক্ষতি কমিয়ে আনার বিষয়টি গ্রাহক ও সরকারকে দেখাতে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে চলমান প্রতিযোগিতায় গুগলের এই অঙ্গীকার নতুন মোড় এনে দেবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

গুগলের ডিভাইস ও সেবা বিভাগের অ্যানা মিগান সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে বলেন, প্রতিষ্ঠানের পরিবহনবিষয়ক কাজে কার্বন নির্গমন আগের বছর ২০১৭ সালের চেয়ে ৪০ শতাংশ কমেছে। বিশ্বজুড়ে কারখানা ও গ্রাহকের কাছে ফোন, স্পিকার, ল্যাপটপ এবং অন্যান্য পণ্য সরবরাহে প্লেনের বদলে জাহাজের ব্যবহার বাড়িয়ে কার্বন নির্গমন কমানো হয়েছে বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

কার্বন ক্রেডিট কেনার মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটি বাকি লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করবে বলে জানিয়েছেন মিগান।

গুগলের ৯টি পণ্যের মধ্যে ৪টি পণ্যে নবায়নযোগ্য প্লাস্টিক ব্যবহার করা হয়েছে বলেও জানানো হয়। হোম স্পিকার ও ক্রোমকাস্ট স্ট্রিমিং ডংগলের কেসিংয়ে ২০ থেকে ৪২ শতাংশ নবায়নযোগ্য প্লাস্টিক ব্যবহার করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

এক ব্লগ পোস্টে গুগল অঙ্গীকার করেছে যে, ২০২২ সালের মধ্যে তাদের কিছু পণ্যে শতভাগ নবায়নযোগ্য প্লাস্টিক ব্যবহার করা হবে।

অন্যদিকে ২০১৭ সালে অ্যাপল অঙ্গীকার করে যে, “কোনো একদিন” তারা শুধু নবায়নযোগ্য উপাদান ব্যবহার করবে। প্রতিষ্ঠানের কিছু পণ্যের অন্তত ৫০ শতাংশ নবায়নযোগ্য প্লাস্টিক, ১১টি পণ্যে নবায়নযোগ্য টিন এবং অন্তত দুইটি পণ্যে নবায়নযোগ্য অ্যালুমিনিয়াম ব্যবহার করা হয়েছে।

সেক্ষেত্রে অ্যাপলের থেকে গুগল কিছুটা পিছিয়ে রয়েছে বলে স্বীকার করেন মিগান। তবে এখন সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট প্রতিষ্ঠানটি একটি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

“আমাদের সব কাজে আমরা ভিত্তিগতভাবে ধারাবাহিকতা আনার চেষ্টা করছি। অগ্রগতি দেখাতে আমাদের সময় লাগবে,” বলেন মিগান।