নিরাপত্তায় কঠোর হচ্ছে জুম

করোনা ভাইরাসের প্রভাবে ঘরবন্দি জীবনে বিভিন্ন অ্যাপস হয়ে উঠেছে ভরসা। স্কুল-বিশ্ববিদ্যালয়, অফিস, ব্যক্তিগত আলাপ, সামাজিক যোগাযোগসহ নিত্য কাজ সারতে ব্যবহার করা হচ্ছে বিভিন্ন অ্যাপস। তেমনই একটি জনপ্রিয় অ্যাপস হচ্ছে জুম।

ভিডিও কনফারেন্স বা কলিংয়ের ক্ষেত্রে সব থেকে এগিয়ে আছে জুম। প্রতিদিন বিশ্বব্যাপী অন্তত ২০ কোটি লোক এই অ্যাপ ব্যবহার করে ভিডিও কনফারেন্স করছেন। জুম ব্যবহার করে একটি কনফারেন্সে কলে ১০০ জন অংশ নিতে পারেন বিনামূল্যে। আর পেইড প্ল্যানে পারেন ৫০০ জন। প্রায় সব অপারেটিং সিস্টেমেই এই অ্যাপ কাজ করার সুযোগ রয়েছে। কিন্তু সম্প্রতি জুম নিয়ে উঠেছে বহু আপত্তি ও নিরাপত্তার অভিযোগ। অনেকে অভিযোগ করছেন, এখান থেকে সহজেই তথ্য পাচার হতে পারে এবং হ্যাক করে ব্যবহারকারীদের বিব্রত করার মতো সুযোগ পাচ্ছে অযাচিত ব্যক্তিরা।

জুম্বোম্বিং নামের একধরনের অপব্যবহারের হুমকি মোকাবিলা করতে হচ্ছে জুম ব্যবহারে। যেখানে অচেনা ব্যক্তিরা একটি আমন্ত্রণ বা মিটিং নম্বরে অ্যাক্সেস পেয়ে অনেক ব্যক্তিগত কনফারেন্স ও কলে হামলে পড়ছে। ফলে যুক্তরাষ্ট্র, সিঙ্গাপুর, ভারত সহ বহু দেশের সরকার ও প্রতিষ্ঠান জুম ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞার মতো অবস্থানেও চলে যাচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের নীতিনির্ধারকরা রিমোট কনফারেন্সিং সেবার মাধ্যমে কোনো বৈঠকে অংশ নিলে এবং ওই বৈঠকসংশ্লিষ্ট সংবেদনশীল তথ্য ফাঁস হয়ে গেলে তা জাতীয় নিরাপত্তার জন্য ঝুঁকি তৈরি করে। মার্কিন সিনেট এ বিষয়টিকেই আমলে নিয়ে জুম ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে সম্প্রতি।