নিরাপত্তা উপদেষ্টাকে বহিষ্কার করলেন ট্রাম্প


যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তাঁর জাতীয় নিরাপত্তাবিষয়ক উপদেষ্টা জন বোল্টনকে বহিষ্কার করেছেন।

মঙ্গলবার বোল্টনকে বহিষ্কার করা হয়েছে বলে এক টুইট বার্তায় জানিয়েছেন ট্রাম্প।

ট্রাম্প টুইটে লিখেছেন, ‘গত রাতে আমি জন বোল্টনকে জানিয়েছি, হোয়াইট হাউসে তাঁর আসার প্রয়োজন নেই। আগামী সপ্তাহে নতুন নিরাপত্তাবিষয়ক উপদেষ্টা নিয়োগ করা হবে।’

তালেবানদের সঙ্গে শান্তি চুক্তি নিয়ে আলোচনায় ট্রাম্পের সঙ্গে বোল্টনের মতানৈক্য হওয়ার এ বরখাস্তের ঘোষণা দেওয়া হয়।

বোল্টনকে বরখাস্ত করার ব্যাপারে হোয়াইট হাউজ প্রেস সচিব স্টেফানি গ্রিশাম বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট বোল্টনের অনেক নীতি পছন্দ করেন না। সোমবার পদত্যাগ করতে বলেছেন বোল্টনকে কিন্তু মঙ্গলবার সকালে তা কার্যকর হলো।’

অন্যদিকে বোল্টন ট্রাম্পের বহিষ্কারের প্রতিক্রিয়ায় এক টুইটে বলেছেন, ‘সোমবার রাতে আমি দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর জন্য ট্রাম্পের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছিলাম। তবে ট্রাম্প সে সময় আমাকে জানিয়েছিলেন, ‘এই বিষয়ে আমরা আগামীকাল (মঙ্গলবার) আলোচনা করতে পারি।’

এ নিয়ে তিন নিরাপত্তা উপদেষ্টাকে বহিষ্কার করলেন ‍ট্রাম্প। বোল্টনের আগে নিরাপত্তা উপদেষ্টা ছিলেন মাইকেল ফ্লিন ও এইচআর ম্যাকমাস্টার।

২০১৮ সালের এপ্রিল থেকে ট্রাম্প সরকারের নিরাপত্তা উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন বোল্টন । তা ছাড়া রোনাল্ড রিগ্যান, সিনিয়র বুশ এবং জর্জ ডব্লিউ বুশের প্রশাসনের দায়িত্বে ছিলেন তিনি।

উল্লেখ্য, তালেবানের সঙ্গে ট্রাম্পের শান্তিচুক্তি বিষয়ক আলোচনার বরাবরই বিরোধী ছিলেন বোল্টন। গত রোববার ওই আলোচনা হওয়ার কথা ছিল। তবে ট্রাম্প আকস্মিক ওই বৈঠক বাতিল করেন।