নেইমার-এমবাপে-কাভানিতে উড়ে গেল সেল্টিক


মৌসুমের ‍শুরু থেকেই আগুনে ফর্মে প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি) শিবিরের দুই তারকা ফুটবলার এডিসন কাভানি ও নেইমার। ট্রান্সফার উইন্ডো বন্ধ হওয়ার ঠিক আগে তাদের সঙ্গে যোগ দিলেন হালের আরেক অন্যতম সেরা তারকা কিলিয়ান এমবাপে। এ ত্রয়ীর এক সঙ্গে জ্বলে ওঠার দিনের চ্যাম্পিয়নস লিগে সেল্টিককে ৫-০ ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়েছে পিএসজি।

চ্যাম্পিয়নস লিগে গ্রুপ ‘বি’ এর প্রথম ম্যাচে সেল্টিকের মাঠেই বড় ব্যবধানে জয় ছিনিয়ে আনলো পিএসজি। প্রতিপক্ষের মাঠে বড় ব্যবধানের জয়ে দলটির হয়ে জোড়া গোল করেন এডিসন কাভানি। একটি করে গোল করেন এমবাপে ও ট্রান্সফারের দিক থেকে বিশ্বের সবচেয়ে দামি তারকা নেইমার।

গতকাল রাতে সেল্টিক পার্কে ম্যাচের ১৯ মিনিটে পাল্টা আক্রমণে পিএসজিকে এগিয়ে দেন নেইমার। আদ্রিওঁ রাবিওর বাড়ানো বল ধরে পিএসজিকে এগিয়ে দেন ব্রাজিলিয়ান এ তারকা। ম্যাচের ৩৪ মিনিটে কিলিয়ান এমবাপের গোলে ব্যবধান বাড়ে সফরকারীদের। উঁচু ক্রসে ডি-বক্সের ডান দিক থেকে হেড করে নেইমার বল দিয়েছিলেন ডি-বক্সের মাঝে দাঁড়ানো কাভানিকে। উরুগুয়ের এই স্ট্রাইকার ঠিকমতো শট নিতে না পারলে বল পেয়ে সেটি জালে পাঠান এমবাপে। ম্যাচের ৪০মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে পিএসজিকে ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে দেন কাভানি। ক্রোয়েশিয়া ডিভেন্ডার ইয়োগো সিমুনোভিচ ডি-বক্সে তাকে ফাউল করলে পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দিতে দেরি করেননি রেফারি।

বিশ্রাম শেষে মাঠে ফিরেও সেল্টিকের মাঠে অপ্রতিরোধ্য ছিল পিএসজি। ৮৩তম মিনিটে মিকায়েল লুস্তিগের আত্মঘাতী গোলে ম্যাচে ফেরার আশা শেষ হয়ে যায় স্বাগতিকদের। ম্যাচের ৮৫ মিনিটে দুর্দান্ত এক হেডে সেল্টিকের জালে নিজের দ্বিতীয় ও দলের শেষ গোলটি করেন কাভানি। শেষপর্যন্ত ৫-০ ব্যবধানেই জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে সক্ষম হয় নেইমার-এমবাপে-কাভানিরা।

চ্যাম্পিয়নস লিগে গতকাল রাতে অপর ম্যাচে অ্যান্ডারলেখটকে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ। সমান ব্যবধানে বাসেলের বিপক্ষে জয় পেয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। অন্যদিকে ইংলিশ লিগের অপর ক্লাব চেলসি ৬-০ ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়েছে কারাবাগকে।