পদত্যাগ করলেন বিশ্বব্যাংক প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম

(FILES) In this file photo taken on November 5, 2018 World Bank President Jim Yong Kim delivers a speech during the “reinvented toilet expo” in Beijing. – World Bank President Jim Yong Kim announced January 7, 2019 he would step down next month, more than three years before his current term was due to expire.The decision ends Kim’s six-year tenure and may give US President Donald decisive influence over the future leadership of the global development lender.”It has been a great honor to serve as president of this remarkable institution, full of passionate individuals dedicated to the mission of ending extreme poverty in our lifetime,” Kim said in a statement. (Photo by Nicolas ASFOURI / AFP)


বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম আকস্মিকভাবে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন। এ পদে তিনি ছয় বছর ধরে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

যদিও ২০১৭ সালে দ্বিতীয় মেয়াদে নির্বাচিত হওয়ার পর তার মেয়াদ পূর্ণ হতে এখনও তিন বছর বাকি আছে। ২০২২ সাল পর্যন্ত তার দায়্ত্বি পালনের কথা ছিল। আগামী ১ ফেব্রুয়ারি থেকে তার পদত্যাগ কার্যকর হবে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

বিশ্বব্যাংক জানিয়েছে, তিনি একটি ফার্মে যোগ দিতে যাচ্ছেন এবং উন্নয়নশীল দেশগুলোতে অবকাঠামো বিনিয়োগ বৃদ্ধি নিয়ে জিম ইয়ং কিম কাজ করবেন।

জলবায়ু পরিবর্তন এবং উন্নয়নে অর্থায়নসহ বিভিন্ন বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের সঙ্গে তার মতবিরোধ ছিল। এর মধ্যেই সোমবার বিশ্বব্যাংকের এক বিবৃতিতে জিম ইয়ং কিমের পদত্যাগের এ ঘোষণা আসে।

বিবিসির এক খবরে বলা হয়, আপাতত বিশ্বব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ক্রিস্টালিনা জর্জিয়েভা অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করবেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সময় বিশ্বব্যাংকের দায়িত্ব পাওয়া জিম পরিবেশবান্ধব জ্বালানি প্রকল্পে অর্থায়নের ওপর জোর দিয়ে আসছিলেন।

তার সময়ে কয়লা বিদ্যুতে বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নও অনেক কমিয়ে আনা হয়েছিল। অন্যদিকে ডোনাল্ড ট্রাম্পের বর্তমান প্রশাসন যুক্তরাষ্ট্রের কয়লা খাতকে পুনরুজ্জীবিত করার ওপর গুরুত্ব দিচ্ছে।

জিম এক ইমেইলে বিশ্বব্যাংকে তার সহকর্মীদের জানিয়েছেন, দায়িত্ব ছাড়ার পর একটি বেসরকারি ফার্মে তিনি যোগ দেবেন, যারা উন্নয়নশীল দেশগুলোতে অবকাঠামো খাতে বিনিয়োগ নিয়ে কাজ করে।