পাকিস্তানে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে তামিমদের হার


বাবর আজমকে বলা হয় পাকিস্তানের ক্রিকেটের ভবিষ্যত। কেন তার উপর এতো আস্থা, আরেকটি প্রমাণ দিয়েছেন মঙ্গলবার রাতে লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে।

বাবর আজম পাকিস্তানকে জিতিয়েছেন বিশ্ব একাদশের বিপক্ষে। ম্যাচসেরার পুরস্কার পাওয়া ডানহাতি এ ব্যাটসম্যান ৫২ বলে করেন ৮৬ রান। তার দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে পাকিস্তান ৫ উইকেটে করে ১৯৭ রান। জবাবে তামিম ইকবাল, ফাফ ডু প্লেসিদের বিশ্ব একাদশের ইনিংস ১৭৭ রানে থেমে যায়। ২০ রানের জয়ে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে পাকিস্তান।

বিশ্ব একাদশের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচ খেলার আগে ঘরের মাঠে মাত্র একটি ম্যাচ খেলেন বাবর আজম। স্বাগতিক দর্শকদের চাপ সামলে শুরু থেকেই দারুণ ব্যাটিং করেন তরুণ টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান। ৩৩ বলে ৮ বাউন্ডারিতে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ফিফটি তুলে নেওয়ার পর ইনিংসটিকে বড় করেন।

তিন পেসার বেন কাটিং, থিসারা পেরেরা এবং ড্যারেন স্যামির ওভারগুলোতে দ্রুত রান তুলেন। তিন অঙ্ক ছোঁয়ার সুযোগ থাকলেও স্যামির অসাধারণ ক্যাচে বাবরের ইনিংসটি থামে ৮৬ রানে। ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসটি সাজান ১০ চার ও ২ ছক্কায়। দ্বিতীয় উইকেটে তাকে দারুণ সঙ্গ দেন ওপেনার আহমেদ শেহজাদ। ৮ রানে ফখার জামানকে হারানোর পর বাবর-শেহজাদ ১২২ রানের জুটি গড়েন। শেহজাদ দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৯ রান করেন। শেষ দিকে ২০ বলে ৩৮ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে পাকিস্তানকে বড় সংগ্রহ এনে দেন শোয়েব মালিক।

বল হাতে বিশ্ব একাদশের হয়ে থিসারা পেরেরা সর্বোচ্চ ২টি উইকেট নেন। ১টি করে উইকেট নেন মরনে মরকেল, বেন কাটিং ও ইমরান তাহির।

লক্ষ্য তাড়ায় বিশ্ব একাদশকে ঝড়ো শুরু এনে দেন তামিম ইকবাল ও হাশিম আমলা। পাওয়ার প্লে-র শেষ ওভারে এসে এ জুটি ভাঙেন রুম্মান রইস। ১৮ বলে ৩ বাউন্ডারিতে ১৮ রান করা তামিম ইকবালকে সরাসরি বোল্ড করেন রইস। একই ওভারের শেষ বলে ২৬ রান করা হাশিম আমলাকে আউট করেন বাঁহাতি পেসার। এরপর ডু প্লেসি ও টিম পেইনের ব্যাটে ভালো জবাব দেয় বিশ্ব একাদশ। কিন্তু মিডল অর্ডারে দ্রুত উইকেট হারিয়ে পথ হারায় বিশ্ব একাদশ। হাসান আলীর এক ওভারে ২২ রান তুলেছিলেন বিশ্ব একাদশের অধিনায়ক ডু প্লেসি। কিন্তু তার ফিরে যাবার পর ম্যাচের নাটাই চলে যায় স্বাগতিকদের হাতে। ১৮ বলে ৪ চার ও ১ ছক্কায় ২৯ রান করেন প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান। টিম পেইনের ব্যাট থেকে আসে ২৫ রান। শেষ দিকে ড্যারেন স্যামির ১৬ বলে ২৯ রানের ঝড়ো ইনিংসে পরাজয়ের ব্যবধান কমায় বিশ্ব একাদশ।

পাকিস্তানের হয়ে ২টি করে উইকেট নেন সোহেল খান, রুম্মান রইস ও শাদাব খান। আজ একই মাঠে পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচে মাঠে নামবে বিশ্ব একাদশ।