পাকিস্তান ম্যাচের পর স্ত্রী-বান্ধবীদের সঙ্গে পাবেন কোহলিরা


দেড় মাস (৩০ মে-১৪ জুলাই) ধরে চলবে বিশ্বকাপ। এতদিন পরিবার থেকে দূরে থাকা কষ্টকর। তাই পুরো সময়টাই স্ত্রী-সন্তানদের সঙ্গে রাখার আবেদন করেছিলেন বিরাট কোহলি-মহেন্দ্র সিং ধোনিরা। প্রথমে তা নাকচ করে দেয় ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই)। কিছুদিন পর অবশ্য তা মেনে নেয় বোর্ড। তবে তা শর্ত সাপেক্ষে।

ভারতের প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, স্ত্রী-সন্তানদের সঙ্গে রাখার অনুমতি পেয়েছেন কোহলিরা। তবে এ জন্য টুর্নামেন্ট শুরুর পর ২১ দিন অপেক্ষা করতে হবে। এর পর পরিবারের সদস্যদের পাশে পাবেন তারা। সঙ্গে রাখতে পারবেন স্ত্রী-সন্তান ও বান্ধবীদের।

এ ২১ দিনের মধ্যে হাইভোল্টেজ ভারত-পাকিস্তান ম্যাচসহ টুর্নামেন্টের বেশিরভাগ ম্যাচই শেষ হয়ে যাবে। বাকি থাকবে মাত্র চারটি ম্যাচ। এর আগে টিম ইন্ডিয়ার ক্রিকেটারদের পরিবারের সদস্যরা মাঠে এলেও থাকতে হবে আলাদা হোটেলে।

বিসিসিআই আশা করছে, এই সময়ের মধ্যেই সেমিফাইনালের টিকিট কেটে ফেলবে ভারত। ফলে ক্রিকেটারদের ওপর বাড়তি চাপ থাকবে না। তখন পরিবারের সদস্যরা থাকলেও সমস্যা হবে না।