বাংলাদেশের সফর নিয়ে লঙ্কান ক্রীড়ামন্ত্রীর বোর্ডকে পরামর্শ

দুপক্ষের দ্বিমতের কারণে বাংলাদেশ ও স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার মধ্যকার তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে। শর্ত মেনে শ্রীলঙ্কার মাটিতে গিয়ে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ খেলতে চায় না বাংলাদেশ। গতকাল সোমবার বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলনে নিজেদের মতামত জানিয়ে দিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

বিসিবির কড়া জবাবের বিষয়টি নজরে পড়েছে শ্রীলঙ্কার যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রী নামাল রাজাপাকসের। যার কারণে, দেশটির কোভিড টাস্কফোর্সের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করতে লঙ্কান বোর্ডকে পরামর্শ দিয়েছেন রাজাপাকসে।

জাতীয় দল ও হাইপারফরম্যান্স (এইচপি) দলের ক্রিকেটার ও সাপোর্ট স্টাফ মিলিয়ে ৬৫ জনের বহর নিয়ে শ্রীলঙ্কায় যেতে চায় বাংলাদেশ। সেখানে গিয়ে কোভিড-১৯ টেস্ট করে তিন দিনের মাথায় অনুশীলনে নামার কথা হয় লঙ্কানদের সঙ্গে। কিন্তু শ্রীলঙ্কার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনার পর বিসিবিকে লঙ্কান বোর্ড জানিয়েছে, সেখানে গিয়ে ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে এবং ৩০ জনের বেশি যাওয়া যাবে না। এ ছাড়াও কিছু শর্ত জুড়ে দেওয়া হয়।

পাল্টা জবাবে নড়েচড়ে বসেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান। তিনি জানান, এত শর্ত দিলে লঙ্কান সফরে দল পাঠাবেন না।

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে নাজমুল হাসান বলেন, ‘কোয়ারেন্টিন বিষয়ে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের প্রস্তাবে আমরা রাজি নই। তাদের শর্ত মেনে সে দেশে গিয়ে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ খেলা সম্ভব নয়।’

সংবাদমাধ্যমে এই খবর দেখে এক টুইট বার্তায় লঙ্কান ক্রীড়ামন্ত্রী লিখেছেন, ‘আমরা সবাই জানি যে কোভিড-১৯ মহামারি এখনও বিশ্বজুড়ে প্রবলভাবে বিরাজমান, এই অবস্থায় প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থাই সর্বোচ্চ প্রাধান্য পাচ্ছে। তবে এই অঞ্চলের ক্রিকেটের স্বার্থে আমি এসএলসিকে বলেছি কোভিড টাস্কফোর্সের সঙ্গে আলোচনা করে বিসিবির ব্যাপারটি পুনর্বিবেচনা করতে।’

এই মাসের শেষ দিকে শ্রীলঙ্কায় যাওয়ার কথা বাংলাদেশ দলের। সেখানে এক মাস প্রস্তুতি নেওয়ার পর অক্টোবরের শেষ দিকে শুরু হওয়ার কথা তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ।