বিয়ের টোপ দিয়ে কুখ্যাত অপরাধীকে গ্রেপ্তার নারী পুলিশের

প্রায় এক বছর ধরে অপরাধীকে ধরার চেষ্টা করছিল পুলিশ। কিন্তু পারছিল না। প্রতিবারই কোনো না কোনো ফাঁক বের হয়ে যাচ্ছিল আসামি। তবে অবশেষে ধরা পড়েছেন। বিয়ের স্বপ্ন দেখিয়ে ভারতের মধ্যপ্রদেশ পুলিশ নিজেদের হেফাজতে নিয়েছে মোস্ট ওয়ান্টেড ওই অপরাধীকে। গত বৃহস্পতিবার উত্তরপ্রদেশের মাহোবা জেলার বিজোরি গ্রামের একটি মন্দির থেকে তাকে আটক করে স্থানীয় পুলিশ।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, উত্তরপ্রদেশের মাহোবা জেলার বিজোরি গ্রামের বাসিন্দা বালকিষান চৌবে। এই বছরের অগস্টে মধ্যপ্রদেশের নওগাঁওতে এক ব্যক্তিকে খুনের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। ছত্তরপুর সাব ডিভিশনের পুলিশকর্মী এসএস বাঘেল বলেন, বহুদিন ধরে অপরাধীকে ধরার চেষ্টা চালাচ্ছিল পুলিশ, কিন্তু প্রতিবারই ফাঁক দিয়ে বের হয়ে যাচ্ছিল।

একদিন পুলিশ জানতে পারে, বিয়ে করার জন্য বহুদিন ধরেই পাত্রী খুঁজছিল চৌবে। পুলিশ সেটিকেই কাজে লাগিয়ে এক নারী পুলিশকর্মীকে পাত্রী হিসেবে ঠিক করে। একটি সিম কার্ড জোগাড় করে এক নারী পুলিশকর্মী চৌবেকে ফোন করেন। জানান, ভুল করে ফোন চলে গেছে। এরপর চৌবে নিজে থেকেই ফোন করে ওই নারীর সঙ্গে কথা বলা শুরু করে। এক সপ্তাহ পরেই বিয়ে করার প্রস্তাব দেন নারী। সেই প্রস্তাব মতো বিজোরির গ্রামে একটি মন্দিরে চৌবেকে ডেকে পাঠানো হয়। সেখানেই হাজির ছিলেন সাদা পোশাকের পুলিশ। চৌবে এলেই তাকে সেখানে গ্রেপ্তার করা হয়।