বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় প্রেমিকের পুরুষাঙ্গ কর্তন, রক্তক্ষরণে মৃত্যু


কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় প্রেমিকের পুরুষাঙ্গ কেটে দিয়েছে প্রেমিকা (৩০)। এতে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে অবশেষে প্রেমিক হাবিবুর রহমান মারা গেছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, উপজেলার আল্লারদর্গা হলুদবাড়িয়া গ্রামের মৃত সাইদ মাস্টারের ছেলে দুই সন্তানের জনক হাবিবুর রহমান (৩৮) পার্শ্ববর্তী মিরপুর গ্রামের স্বামী পরিত্যক্তা ওই নারীর সঙ্গে বেশ কয়েক বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক চালিয়ে আসছিলেন। ওই নারীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন সময়ে শারিরীক সম্পর্কও গড়ে তোলেন।

সম্প্রতি হাবিবুর প্রেমিকাকে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানালে প্রতিষোধ নিতে গত মঙ্গলবার বিকেলে ওই নারী পার্শ্ববর্তী দাড়ের পাড়া গ্রামে তার বোনের বাড়িতে হাবিবুরকে ডেকে নেয়। ওই দিন সন্ধ্যায় শারীরিক মেলা মেশার সময় প্রেমিকা ব্লেড দিয়ে হাবিবুরের পুরুষাঙ্গ কেটে দেয়। পরে তাকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পথে হাবিবুর মারা যায়।

চিকিৎসকরা জানান, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে সে মারা গেছে। এ ব্যাপারে হাবিবুরের ভাই মাহবুবুর রহমান বাদী হয়ে ৪ জনকে আসামি করে মামলা করেছেন।

দৌলতপুর থানার ওসি শাহ দারা খান জানান, বুধবার দুপুরে দৌলতপুর থানায় মামলা হওয়ার পর ওই নারীকে আটক করা হয়েছে।