বুয়েটের শিক্ষার্থী আবরার হত্যা মামলার বিচার শুরু

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যা মামলার ২৫ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত। এ অভিযোগ গঠনের ফলে মামলার আনুষ্ঠানিক বিচার শুরু হলো।

এছাড়া আগামী ২০ সেপ্টেম্বর থেকে ১ অক্টোবর পর্যন্ত বুয়েট ছাত্র আবরার হত্যা মামলার টানা সাক্ষ্যগ্রহণ চলবে।

ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক আবু জাফর মো. কামরুজ্জামান মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন। এ সময় কারাগারে থাকা ২২ আসামি নিজেদের নির্দোষ দাবি করে আদালতের কাছে ন্যায়বিচার প্রত্যাশা করেন। অভিযোগ গঠন করার আগে কারাগারে থাকা ২২ আসামিকে আদালতে হাজির করা হয়।

অভিযোগ গঠনের বিরুদ্ধে হাইকোটে আপিল করবেন বলে জানিয়েছেন আসামি পক্ষের আইনজীবী ফারুক আহমেদ।

এ সময় আসামিপক্ষের আইনজীবীদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে মানবাধিকার যাতে লঙ্ঘিত না হয় সে জন্য ২২ আসামিকে হাতকড়া ও দড়ি না পরাতে পুলিশকে নিদেশ দেন আদালত।

২০১৯ সালের ৬ অক্টোবর বুয়েটের শেরেবাংলা হলে তড়িৎ ও প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরারকে নৃশংসভাবে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। পরদিন আবরারের বাবা চকবাজার থানায় বাদী হয়ে মামলা করেন। হত্যা মামলার ৩ আসামি এখনও পলাতক। গত ৩ নভেম্বর এ মামলায় আদালতে চার্জশিট দেয় গোয়েন্দা পুলিশ।

চলতি বছরের মার্চে মামলাটির দ্রুত বিচারের জন্য আবরারের পরিবার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তরের জন্য আবেদন করেন। সে আবেদনে সাড়া দিয়ে আইন মন্ত্রণালয় আবরার হত্যা মামলাটি বিচারকাজ দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১ এ নির্ধারণ করেন। রাষ্ট্রপক্ষে ৩ জন প্রসিকিউটর নিয়োগও দেয়া হয়েছে।