ভালুকের বনে মেয়েটি একা তিন দিন, তবুও পুরুষ আতঙ্কে কুঁকড়ে ছিল


রাশিয়ার ঘন জঙ্গলে পাঁচ বছর বয়সী এক মেয়ে হারিয়ে যাওয়ার তিনদিন পর উদ্ধার হয়েছে। ওই বনে ভালুক ছিল এবং বৃষ্টিপাতও হয়েছে ওই সময়ে। জানা গেছে, বন্য মাশরুম সংগ্রহ করতে দাদির সঙ্গে যাওয়ার পর ওই শিশু হারিয়ে যায়।

জারিনা অ্যাভগোগিনাকে প্রথমে কুকুরের সাহায্যে খুঁজেও পায়নি উদ্ধারকারীরা। উদ্ধার হওয়ার পর ওই শিশু জানিয়েছে, হারিয়ে যাওয়ার পর বনের মধ্যে কেবল পুরুষের ভয়ে সে কুঁকড়ে ছিল।

জানা গেছে, উদ্ধারকারীরা ওই শিশুর পায়ের ছাপ দেখে দেখে এগিয়ে যাওয়ার পর তাকে খুঁজে পায়। কিন্তু তাকে খুঁজে পেতে বেগ পেতে হয় তাদের। উদ্ধারকারীরা আগে থেকেই জেনেছিলেন, ওই শিশুর পুরুষের প্রতি এক ধরনের ভীতি রয়েছে। এর আগেও ভয়ে একপর্যায়ে অত্যধিক ঘামতে থাকার কারণে একাধিকবার তাকে হাসপাতালে পর্যন্ত চিকিৎসা করাতে হয়েছে।

তবে ওই শিশুর পরিবারের কোনো নারী উদ্ধারকারী দলের সঙ্গে যেতে পারেননি। এমনকি তার মায়ের যে কোনো মুহূর্তে সন্তান হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সে কারণে তিনিও যেতে পারেননি।

অবশেষে শিশুটি হারিয়ে যাওয়ার চতুর্থ রাতে উদ্ধারকারীরা তাকে খুঁজে পায়। ওই সময় শিশুটি লুকিয়ে ছিল। জানা গেছে, মেয়েটি সুস্থ আছে। তবে অত্যধিক পরিমাণে ঘেমেছে সে। এছাড়া অসংখ্য মশা তাকে কামড়েছে।

উদ্ধারকারীরা প্রথমেই তাকে জানিয়ে দেন, তারা তাকে বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার জন্য গেছেন। এরপর শিশুটির কাছে জানতে চাওয়া হয় যে, সে ভয় পেয়েছে কিনা? কিন্তু শিশুটি জানায়, ‘না আমি ভয় পাইনি। তবে পানি আর কেক খেতে চাই।’

পরে ওই শিশুকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে।