মদপানে মুন্সীগঞ্জের তিন নারীর মৃত্যু


অতিরিক্ত মদপানে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার হোসেন্দী এলাকার বাল্মীকি সম্প্রদায়ের তিন নারী মারা গেছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। আজ শনিবার ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যান।

এর আগে গতকাল রাতে এ ঘটনায় গুরুতর আহত আরেকজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে বলে এনটিভি অনলাইনকে জানিয়েছেন

নিহত তিনজনের নাম চামেলী, চায়না ও জোসনা। এদের মধ্যে চামেলী ও চায়না আপন বোন। আর জোসনা তাদের ফুফু। হতাহতরা প্রত্যেকেই গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ গ্রামের বাসিন্দা।

গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হারুন-অর রশিদ বলেন, হোসেন্দী এলাকার খান শিপইয়ার্ডে পরিচ্ছন্নতাকর্মী হিসেবে কর্মরত ছিলেন চামেলী ও তাঁর স্বামী মন্টু। স্বামী-স্ত্রী দুইজনই ওই শিপইয়ার্ডের ভেতরেই থাকতেন। গতকাল শুক্রবার চামেলীর বোন চায়না ও পিসি জোসনা সেখানে বেড়াতে আসেন। এরপর গতকাল রাত ১১টার দিকে তাঁরা সবাই মিলে মদপান করেন। মধ্যরাতের দিকে তাঁরা অসুস্থ হয়ে পড়েন। তখন তাদেরকে গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়।

ওসি আরো বলেন, সেখানকার চিকিৎসক আশঙ্কাজনক অবস্থায় তিনজনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ সকাল ১০টার দিকে চামেলী ও চায়না মারা যায়। এর দুই ঘণ্টা বাদে দুপুর ১২টার দিকে মারা যান তাদের ফুফু জোসনা। চামেলীর স্বামী মন্টুর অবস্থাও আশঙ্কাজনক।