যশোরে একাদশে ভর্তিতে বাদ পড়লো ১৭,৪৬৮ শিক্ষার্থী


যশোর শিক্ষা বোর্ডের আওতাধীন কলেজগুলোতে ১৭ হাজার ৪৬৮ জন শিক্ষার্থী একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি থেকে বাদ পড়েছে।

যশোর শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক কেএম রব্বানী জানান, আন্তঃশিক্ষা বোর্ডের নির্ধারণ করা সময়ে যে সব শিক্ষার্থী অনলাইনে ভর্তির জন্য আবেদন করার পর নিশ্চিত করেনি তারা ভর্তি হওয়া থেকে বাদ পড়েছে।

যশোর শিক্ষা বোর্ড সূত্র জানায়, গত ১২ মে থেকে ২৩ মে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য প্রথম ধাপের আবেদনে সময় নির্ধারণ করে দেওয়া হয়। আবেদনের ফলাফল প্রকাশ করা হয় ১০ জুন। প্রথম ধাপে আবেদনকারী শিক্ষার্থীদের নিশ্চয়নের সময় ছিল ১১ জুন। অথচ এ সময় পার হয়ে যাওয়ার পর ও দ্বিতীয় ধাপে ১৯জুন থেকে ২০ জুন ভর্তির জন্য আবেদন ও নিশ্চয়ন না করায় ৫০ হাজার ১৫৬ জন শিক্ষার্থীর ভর্তির আবেদন বাতিল হয়ে যায়। এরমধ্যে ২৪ জুন তৃতীয় ধাপে আবেদন ও ২৫ জুন নিশ্চয়ন করায় ৩২ হাজার ৬৮৮ জন শিক্ষার্থী একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হতে পারছে। কিন্তু তৃতীয় ধাপে ১৭ হাজার ৪৬৮ জন শিক্ষার্থী আবেদন ও নিশ্চয়ন না করায় তারা ভর্তি হওয়া থেকে বাদ পড়েছে।

এ ব্যাপারে আন্তঃশিক্ষা বোর্ডের সদস্য ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক প্রফেসর হারুন অর রশীদ জানান, চলমান ভর্তির কার্যক্রম শেষ হলে যদি আন্তঃশিক্ষা বোর্ড থেকে ভর্তির জন্য নতুন করে সময় দেয় তাহলে বাদ পড়া শিক্ষার্থীরা ভর্তির সুযোগ পাবে। এছাড়া আর কোন উপায় নেই।