যাত্রীর অন্তর্বাসে মিলল সোয়া ৪ কেজি সোনা


শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অভিযান চালিয়ে এক যাত্রীর অন্তর্বাসে বিশেষভাবে লুকিয়ে রাখা ৪৩টি স্বর্ণের বার জব্দ করেছে শুল্ক গোয়েন্দা।

সোমবার মধ্যরাতে ওই যাত্রীকে আটক করা হয়। আটক স্বর্ণের মোট ওজন ৪ কেজি ২৮৬ গ্রাম।

আটক যাত্রী নাম মো. আনোয়ার হোসেন। তিনি ঢাকার মোহাম্মদপুরের বাসিন্দা।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের মহাপরিচালক মইনুল খান জানান, আটক আনোয়ার হোসেন এ বছর জানুয়ারিতে দু’বার ঢাকা-সিঙ্গাপুর যাতায়াত করেছেন। জিজ্ঞাসাবাদে তিনি একজন লাগেজ ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচয় দেন। এই স্বর্ণ রেজাউল নামের এক ব্যক্তির বলে আটক যাত্রী দাবি করেন। তিনি সিঙ্গাপুরে যাতায়াত টিকিট ও ৫০ হাজার টাকার বিনিময়ে এই স্বর্ণ বহন করছিলেন।

সোমবার রাতে একটি ফ্লাইটে তিনি সিঙ্গাপুর থেকে শাহজালালে অবতরণ করেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শাহজালালে অবতরণের পর তাকে নজরদারিতে রাখা হয়।
পরে গ্রিন চ্যানেল পার হওয়ার পরে যাত্রীকে থামিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে আনোয়ার তার কাছে স্বর্ণ থাকার বিষয়টি অস্বীকার করেন।

তবে সুনির্দিষ্ট গোপন সংবাদ থাকায় এবং যাত্রীর কথাবার্তায় অসঙ্গতি পাওয়ায় তাকে ব্যাগেজ কাউন্টারে এনে শুল্ক গোয়েন্দারা দেহ তল্লাশি করেন। পরে তার অন্তর্বাসের ভেতরে কালো কাপড়ে বিশেষভাবে মোড়ানো অবস্থায় এই স্বর্ণের বারগুলো উদ্ধার করে।

তার কাছ থেকে শুল্ক গোয়েন্দারা সর্বমোট ৪৩টি স্বর্ণের বার পান। এর প্রতিটির ওজন ৯৯.৭০ গ্রাম (৪ কেজি ২৮৬ গ্রাম)। আটক স্বর্ণের মূল্য ২ কোটি ১৪ লাখ ৩০ হাজার টাকা।

আটক যাত্রী মো. আনোয়ার হোসেনকে শুল্ক আইনে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে বিমানবন্দর থানায় সোপর্দ করা হবে বলেও জানান মইনুল খান।