শতাব্দীর দীর্ঘতম ‘ব্লাড মুন’ প্রত্যক্ষ করলো বিশ্ববাসী


শতাব্দীর দীর্ঘতম পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণের পাশাপাশি ‘ব্লাড মুন’ প্রত্যক্ষ করেছে বিশ্বের কোটি কোটি মানুষ। গতকাল শুক্রবার রাতে চমকপ্রদ এই মহাজাগতিক ঘটনা দেখা গেছে।

পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণের সময় সূর্য ও চাঁদের মাঝখানে একই সরলরেখায় অবস্থান করে পৃথিবী। সে সময় পৃথিবীর ছায়া চাঁদের ওপর পড়ে। ফলে পৃথিবী থেকে মনে হয় চাঁদ ধীরে ধীরে ঢেকে যাচ্ছে। এ কারণে এই চাঁদকে ‘ব্লাড মুন’ নামে অভিহিত করা হয়।

এই চন্দ্রগ্রহণের সময় কক্ষপথে পৃথিবী থেকে চাঁদের দূরত্ব সবচেয়ে বেশি ছিল। এর ফলে, পৃথিবীর ছায়াও দীর্ঘপথ জুড়ে বিদ্যমান ছিল। গ্রহণ চলাকালে চাঁদকে অনেকটা তামাটে বা লালচে চাকতির মতো মনে হয়। কারণ, সূর্যের কিছু আলো পৃথিবীর বায়ুমন্ডলের মধ্য দিয়ে বিচ্ছুরিত হয় এবং চাঁদের ওপর পড়ে।

আফ্রিকার দক্ষিনাংশ, অষ্ট্রেলিয়া ও মাদাগাস্কারের বাসিন্দারা এই পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ সবচেয়ে ভালোভাবে দেখার সুযোগ পেয়েছে। এই চন্দ্রগ্রহণ ইউরোপ, দক্ষিণ এশিয়া ও দক্ষিন আমেরিকার দেশগুলো থেকেও দেখা গেছে।