শর্টস পরা যাবে না !


ভারতের বেঙ্গালুরুতে এক ব্যক্তি ফতোয়া জারি করেছেন। এই ফতোয়ায় বলা হয়েছে, সেখানে শর্টস পরা চলবে না। পরতে হবে ভারতীয় পোশাক, যা দেশের সংস্কৃতির সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে।

জানা গেছে, ওই ব্যক্তি যেচে এক তরুণীকে ওই উপদেশ দিতে যান। বৃহস্পতিবার রাতে এক দম্পতির বাইক আটকান ওই ব্যক্তি। তরুণী শর্টস পরেছিলেন বলে দাবি করে ওই ব্যক্তি রীতিমত চিৎকার চ্যাঁচামেচি শুরু করেন। তরুণীর শ্লীলতাহানি করারও চেষ্টা করেন তিনি বলে অভিযোগ।

বেঙ্গালুরুর এইচএসআর লেআউট এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। তরুণীর সঙ্গে থাকা পুরুষ সঙ্গী পুরো ঘটনাটি ভিডিও করেন। পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেন।

ভিডিওতে দেখা গেছে, ওই ব্যক্তি বচসায় জড়িয়ে পড়েছেন বাইক আরোহী সঙ্গে। বারবার চিৎকার করে বলছেন সঠিক জামা কাপড় না পড়লে, রাস্তায় বেরোনো উচিত নয় কোনও মেয়ের। বিশেষত, ভারতীয় সংস্কৃতি অবশ্যই মেনে চলা উচিত পোশাক আশাকের ক্ষেত্রে।

ওই দম্পতি বেঙ্গালুরুর বাসিন্দা। তরুণীর বান্ধবী সিমরন কাপুর এই ভিডিও আপলোড করেন। গোটা ঘটনার বর্ণনাও দেন।

তিনি জানান, যে ব্যক্তি এই অভব্য আচরণ করেছে, তিনি মদ্যপ অবস্থায় ছিলেন না। কিন্তু যেভাবে ওই দম্পতির ওপর তিনি চড়াও হন, তাতে বেশ আতঙ্কিত সাধারণ মানুষ। বেঙ্গালুরুতে নিরাপত্তা কোথায়, প্রশ্ন তুলেছেন তাঁরা।

প্রসঙ্গত, এর আগে পোশাক বিধি নিয়ে সরব হতে দেখা গিয়েছে বিজেপি নেতা সুব্রহ্মণ্যম স্বামীকে। সে সময় তিনি বলেছিলেন, পশ্চিমি পোশাক ভারতের জন্য উপযুক্ত নয়। আর তার এই মন্তব্যকে কেন্দ্র করে ফের একবার বিতর্কের ঝড় ওঠে রাজনৈতিক মহলে। এই বিজেপি নেতা জানিয়েছিলেন দলের নেতা মন্ত্রীদের ক্ষেত্রে পশ্চিমী পোশাক নিষিদ্ধ হওয়া উচিত।