শীতে স্থবির সারাদেশ

শৈত্য প্রবাহে দেশের ইতিহাসে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা নেমে এসেছে। উত্তরের জনপদগুলোতে অবস্থা বেশি শোচনীয়। প্রতিনিয়তই ঠান্ডাজনিত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে হাসপাতালগুলোতে। প্রচণ্ড শীতে সবচেয়ে বিপাকে পড়েছে নিম্ন আয়ের শ্রমজীবী মানুষেরা।

বাংলাদেশের ইতিহাসে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা গতকাল সোমবার রেকর্ড করা হয়েছে উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায়। সোমবার সকালে সেখানে তাপমাত্রা ২.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিল বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, এ অবস্থা চলবে ১০ তারিখ পর্যন্ত তারপর স্বাভাবিক হয়ে আসবে তাপমাত্রা।

পঞ্চগড়ে শৈত্যপ্রবাহ ও তীব্র শীতে জনজীবন স্থবির হয়ে পড়েছে। শীতবস্ত্রের অভাবে ও কাজের সুযোগ কমে যাওয়ায় নিম্ন আয়ের মানুষ চরম দুর্ভোগে পড়েছে। কয়েকদিনে উত্তরে হিমেল হাওয়া ও ঘনকুয়াশার কারণে শীতের তীব্রতা বৃদ্ধি পেয়েছে। সন্ধ্যার পর থেকে শীতের তীব্রতা থাকায় মানুষজন দ্রুতই ঘরে ফিরে যাচ্ছে। দুর্ঘটনা এড়াতে যানবাহনগুলোকে হেডলাইট জ্বালিয়ে চলাচল করতে দেখা গেছে।