সেই আয়লান কুর্দির নামে জাহাজ, সেখানেই কাজ করতে চান শিশুটির বাবা


ভূমধ্যসাগরের তীরে পাওয়া সিরিয়ার সেই তিন বছরের শিশু আয়লান কুর্দির লাশের ছবিটি কাঁপিয়ে দিয়েছিল সারাবিশ্ব। জার্মানির একটি উদ্ধারকারী জাহাজের নামকরণ করা হয়েছে শিশু আয়লানের নামে। তার বাবা এখন সেই জাহাজেই কাজ করতে চান।

ইটালির দৈনিক লা রিপাবলিকায় দেয়া সাক্ষাৎকারে নিজের আগ্রহের কথা জানান ৪৫ বছর বয়সি আবদুল্লাহ কুর্দি। ভূমধ্যসাগরে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের উদ্ধারকারী জার্মান স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা সি-আই-এর কাজে সহযোগিতা করতে চান তিনি।

সাক্ষাৎকারে আব্দুল্লাহ কুর্দি জানান, তিনি আবার বিয়ে করেছেন এবং বাবা হতে চলেছেন। বলেন, আমার সন্তানের জন্মের পরপরই আমি সেই জাহাজে গিয়ে অভিবাসীদের উদ্ধারকাজে যোগ দেবো। ‘আমি তাদের সেই সাহায্যটুকু করতে চাই, যা আমি পাইনি।’

২০১৫ সালে তুরস্কের বোদ্রুম থেকে সাগরপথে গ্রীসের দ্বীপ কসে যাওয়ার সময় দুই সন্তানসহ কুর্দির স্ত্রী মারা যান।

সি-আই আব্দুল্লাহ কুর্দির সঙ্গে যোগাযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। সংস্থাটির মুখপাত্র গর্ডেন ইজলার বলেন, ‘এই পরিবারটির সঙ্গে আমাদের আবেগের সম্পর্ক গড়ে উঠেছে।’ তিনি যোগ করেন, ‘যদি আবদুল্লাহ আমাদের চাহিদা অনুযায়ী প্রাতিষ্ঠানিক সব যোগ্যতা পূরণ করে তাহলে আমরা অবশ্যই তাকে আমাদের সঙ্গী করে নেবো। তিনি তখন আমাদের ক্রুদের একজন হবেন এবং কাজ করবেন।’

আয়লান কুর্দি জাহাজটি এখন স্পেনের বুরিনা বন্দরে অলস বসে আছে। কারণ, উদ্ধারকাজ চালাবার মতো অর্থ তাদের নেই। তবে ১২ অক্টোবর থেকে আবার উদ্ধারকাজ শুরু করতে চায় তারা।

আবদুল্লাহ কুর্দি এখন ইরাকের এরবিলে থাকেন। সেখানে একটি শরণার্থী ক্যাম্পে শিশুদের সাহায্য করেন তিনি।