সেপটিক ট্যাংকে মোবাইল তুলতে নেমে দুজনের মৃত্যু


টয়লেটের সেপটিক ট্যাংকে পড়ে যাওয়া মোবাইল ফোন উদ্ধার করতে নেমে দুলু মিয়া ও এনামুল হক নামে দুই যুবকের মৃত্যু হয়েছে। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় আরো একজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সোমবার রাতে রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়নের বড়ঘোলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম জানান, ওই গ্রামের মসের উদ্দিনের ছেলে দুলু মিয়া রাতে টয়লেটে যায়। এ সময় তার হাতে থাকা মোবাইল ফোনটি সেপটিক ট্যাংকে পড়ে যায়। ফোনটি উদ্ধারে একটি বাঁশ বেয়ে ট্যাংকে নামেন দুলু মিয়া। কিন্তু তার ওপরে উঠে আসতে দেরি হলে প্রতিবেশী আজহার আলীর কলেজপড়ুয়া ছেলে এনামুল হকও সেপটিক ট্যাংকে নেমে পড়েন। এর পর থেকে দুজনের সাড়া-শব্দ না পেয়ে শাহিন নামে আরেক যুবক সেখানে নামেন।

পরে স্থানীয়দের দেওয়া খবরে ঘটনাস্থলে এসে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তিনজনকে উদ্ধার করলেও শ্বাসকষ্টে ঘটনাস্থলেই মারা যান কলেজছাত্র এনামুল হক। হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান দুলু মিয়া। আর শাহিনকে পীরগঞ্জ উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থাও আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।