স্কুলছাত্রীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা, দুই যুবকের কারাদণ্ড


গাজীপুরের কালিয়াকৈরে এক স্কুলছাত্রীকে জোর করে আটকে রেখে শ্লীলতাহানির চেষ্টার অভিযোগে দুই যুবককে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

গাজীপুরের নির্বাহী হাকিম ও কালিয়াকৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম গত সোমবার এ আদেশ দিলেও ওই দুই যুবককে গতকাল মঙ্গলবার কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন কালিয়াকৈর উপজেলার শিমুলতলী এলাকার রনি সিকদার (২২) ও পলাশ গোস্বামী (২০)।

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম জানান, বেশ কিছুদিন ধরে কালিয়াকৈর উপজেলার কালিয়াকৈর পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়ার পথে ছাত্রীদের নানাভাবে উত্ত্যক্ত করে আসঝিলেন রনি ও তাঁর সহযোগী পলাশ।

গত সোমবার দুপুরে বিদ্যালয়ে যাওয়ার পথে দশম শ্রেণির দুই ছাত্রীর পথরোধ করেন ওই দুই যুবক। এ সময় তাঁরা জোর করে কিশোরী এক ছাত্রীকে টেনেহিঁচড়ে গলির ভেতরে নিয়ে যাওয়ার সময় অন্য ছাত্রী পালিয়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ঘটনাটি জানায়।

বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও স্থানীয়রা সঙ্গে সঙ্গেই ঘটনাস্থলে ছুটে যান এবং হরিপদ গোস্বামী নামের এক ব্যক্তির বাড়ির তালাবদ্ধ একটি কক্ষ থেকে মেয়েটিকে উদ্ধার করেন। এ সময় ঘটনায় জড়িত থাকায় রনি ও পলাশকে আটক করা হয়। তাঁদের মধ্যে পলাশ হরিপদ গোস্বামীর ছেলে।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনে আটক দুই যুবককে থানায় নিয়ে যায়। সন্ধ্যায় ইউএনও মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম ভ্রাম্যমাণ আদালতে রনি সিকদারকে দেড় বছর ও পলাশ গোস্বামীকে এক বছর করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন। পরে কালিয়াকৈর থানা পুলিশ গতকাল দুই যুবককে গাজীপুর জেলা কারাগারে পাঠায়।