‘স্ত্রীর পরকীয়ার’ জেরে দিনমজুরকে কুপিয়ে হত্যা

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে স্ত্রীর পরকীয়ার জেরে মুল্লুক চান নামের এক দিনমজুরকে কুপিয়ে হত্যার পর সেফটিক ট্যাংকে মরদেহ গুম করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রীসহ দুজনকে আটক করেছে পুলিশ।

মুল্লুক চান উপজেলার বাঁশ এলাকার মোনতাজ আলীর ছেলে।

মুল্লুক চানের স্বজন ও এলাকাবাসী জানান, দীর্ঘ দিন ধরে স্ত্রীর অনৈতিক কার্যকপালকে কেন্দ্র করে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে পারিবারিক কলহ চলছিল। গত শনিবার দিবাগত রাত থেকে মুল্লুক চানকে পাওয়া যাচ্ছিল না। এ ব্যাপারে মুল্লুক চানের মা তার স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করেও কোনো সদুত্তর পাননি। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে ওই নারী তার মেয়ের কাছে স্বীকার করেন, তার বাবাকে তিনজন মানুষ মুখোশ পরে খুন করে বাড়ির পাশে টয়লেটের সেফটিক ট্যাংকে ফেলে রেখে গেছে। পরে স্বজনরা কালিহাতী থানা পুলিশকে জানালে মুল্লুক চানের স্ত্রীসহ দুজনকে আটক করে।

তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) সকালে সেফটিক ট্যাংক থেকে মুল্লুক চানের ক্ষতবিক্ষত মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানিয়েছে পুলিশ।