স্বামীর ‘বন্ধু’র ধর্ষণচেষ্টা, রক্ষা দেয় মরিচের গুঁড়া


নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলায় এক গৃহবধূকে (৩২) ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে মামলা করা হয়েছে। আর মামলাটি করা হয়েছে ভুক্তভোগীর স্বামীর কথিত বন্ধু মানিকের (৩৮) বিরুদ্ধে। মানিক ওই গৃহবধূর ছোড়া মরিচের গুঁড়া এবং দায়ের কোপে আহত হয়েছেন।

ঘটনাটি ঘটে গত বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার ধানশালিক ইউনিয়নে। খবর পেয়ে রাতেই কবিরহাট থানা পুলিশ কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাটের একটি বেসরকারি হাসপাতাল থেকে মানিককে গ্রেপ্তার করে। এরপর গতকাল তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। মানিক ধানশালিক ইউনিয়নের চরগুল্লাখালি গ্রামের আব্দুল হাইয়ের ছেলে।

স্থানীয় লোকজনের ভাষ্য মতে, ওই গৃহবধূর স্বামী ট্রাকচালক। তিনি চট্টগ্রামে থাকেন। স্বামীর সঙ্গে তাঁর বিরোধ চলছিল। এ সুযোগে ‘বন্ধু’ মানিক তাঁদের বিরোধ নিষ্পত্তির উদ্যোগ নেন। একপর্যায়ে ভুক্তভোগী নারীকে তিনি কোম্পানীগঞ্জে এক কবিরাজের কাছেও নিয়ে যান। বন্ধুর অনুপস্থিতিতেও তাঁদের বাড়িতে যাতায়াত ছিল মানিকের। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে সুসম্পর্ক গড়ে দেবে—এমন কথা বলে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় একটি তাবিজ নিয়ে ভুক্তভোগীর ঘরে যান মানিক। ঘরে বসে কথা বলার একপর্যায়ে মানিক ওই গৃহবধূর মুখে বালিশ চাপা দিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করেন।