হবু বরের গোপন ভিডিও ফাঁসের ভয় দেখিয়ে ব্ল্যাকমেইল তরুণীর!

ভারতের বেঙ্গালুরুর এক ৩৩ বছর বয়সী ব্যবসায়ীর গোপন ভিডিও ফাঁসের ভয় দেখিয়ে তাকে ব্ল্যাকমেইল করার অভিযোগ উঠল এক তরুণীর বিরুদ্ধে। তরুণী নিজেকে বেঙ্গালুরুর ইলেকট্রনিক সিটির বাসিন্দা বলে দাবি করছেন। কিন্তু পুলিশ ফোন নম্বর ট্র্যাক করলে দেখা যায় নম্বরটি হাওড়ার!

ভারতের স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, এক ম্যাট্রিমনিয়াল (বিবাহ সম্পর্কিত) সাইটে কথা হয় দু’জনের। তারপর সম্পর্ক গড়ায় বন্ধুত্বের দিকে। এরপর প্রেম। তবে তাদের সামনা-সামনি দেখা হয়নি। ওই ব্যক্তি জানিয়েছেন, শ্রেয়া নামের ওই তরুণীকে চাকরির সন্ধানও দিয়েছিলেন তিনি। দু’জনেই স্থির করেন শিগগিরই বিয়েও করে নেবেন। কিন্তু সব হিসেব পাল্টে যায় গত ৭ ফেব্রুয়ারি।

ভুক্তভোগী ওই ব্যক্তি আরো জানান, হোয়াটসঅ্যাপ কলে শ্রেয়া প্রস্তাব দেন, তিনি তার হবু বরের পোশাকহীন শরীর দেখতে চায়। তিনি শারীরিকভাবে পুরোপুরি সমর্থ কি না, সেটা বুঝে নেওয়াই আসল উদ্দেশ্য। এমন প্রস্তাবে ওই ব্যক্তি কিছুটা ব্রিবত হয়ে পড়েন। কিন্তু শ্রেয়া নামের ওই তরুণী দ্রুত নিজের নগ্ন ছবি পাঠান তাকে। এরপর আর কোনো সংকোচ করেননি ভুক্তভোগী। ভিডিও কলও করেন তিনি।

সংবাদ প্রতিদিনের খবরে বলা হয়, কলটি শেষ হওয়ার পরেই আসল মূর্তি ধারণ করেন শ্রেয়া। তরুণী জানান, ১ লাখ রুপি না দিলে ওই ভিডিও অনলাইনে ফাঁস করে দেবেন। উপায় না দেখে অর্থ দিতে রাজি হন। তিনি প্রাথমিকভাবে ৫ হাজার রুপি দেন। পরে আরও দু’বার ৫ ও ১০ হাজার রুপি পাঠান তরুণীকে। কিন্তু ২০ হাজার রুপি পাওয়ার পরেও তরুণী ব্ল্যাকমেল করতে থাকেন। এরপরই পুলিশের দ্বারস্থ হন ওই যুবক।

তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পেরেছে শ্রেয়ার ফোনটা আসে হাওড়া থেকে। অভিযুক্ত তরুণীর বিরুদ্ধে একাধিক ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। তবে শ্রেয়ার কোনো ধারণা নেই বিষয়টা পুলিশ পর্যন্ত পৌঁছে গেছে! কারণ তিনি এখনো ফোন করে চলেছেন ওই ব্যক্তিকে। তাকে দ্রুত গ্রেপ্তার করার পরিকল্পনা করছে পুলিশ। এমনটিই জানা গেছে সংবাদ প্রতিদিনের খবরে।