হায়দরাবাদ ধর্ষণকাণ্ড : সংসদ ভবনের সামনে অনশন, হেনস্তার শিকার তরুণী

পেশায় পশু-চিকিৎসক এক তরুণীকে (২৬) গণধর্ষণ করে হত্যার পরে পেট্রোল ঢেলে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। সম্প্রতি এ ঘটনা ঘটেছে ভারতের তেলঙ্গানায়। এই ঘটনায় ভারত জুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। প্রতিবাদে গর্জে ওঠেছে সব মহল। রাজধানীর রাজপথে নেমে আন্দোলনে শামিল হন নারীরাও।

এই ঘটনায় প্রতিবাদ জানাতে সংসদ ভবনের সামনে অনশনে বসেন এক তরুণী। আর তাকেই হেনস্তা করার অভিযোগ উঠল দিল্লি পুলিশের বিরুদ্ধে। এই ঘটনার পরই দিল্লি পুলিশকে নোটিস পাঠিয়েছে দিল্লি মহিলা কমিশন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, গত বুধবার রাতে হায়দরাবাদের অদূরে সামশাবাদ টোলপ্লাজার কাছে পূর্বপরিকল্পনামাফিক লরির চালক এবং খালাসি মোট চারজন মিলে ধর্ষণ করে ওই তরুণী পশু চিকিৎসককে। নারকীয় অত্যাচারের পর জ্বালিয়ে দেওয়া হয় তরুণীকে। পরেরদিন গলায় লকেট দেখে তরুণীকে শনাক্ত করে তার পরিবার। এই ঘটনার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই চার অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

অভিযুক্তদের কঠোর শাস্তির দাবিতে সরব সমাজকর্মী থেকে সাধারণ মানুষ প্রায় সকলেই। প্রতিবাদের জোয়ার আছড়ে পড়ে দিল্লিতেও। শনিবার সংসদ ভবনের সামনে নারীদের সুরক্ষার দাবিতে প্ল্যাকার্ড হাতে অনশনে বসেন অনু দুবে নামে এক তরুণী। অভিযোগ, সেই সময় বেশ কয়েকজন নারী পুলিশকর্মী তাকে ঘিরে ধরেন। জোর করে টেনে হিঁচড়ে গাড়িতে তোলা হয় অনুকে। এরপর তাকে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। ওই নারীকে হেনস্তার ঘটনায় মহিলা কমিশনের পক্ষ থেকে দিল্লি পুলিশকে নোটিস পাঠানো হয়েছে। আগামী ৪ ডিসেম্বরের মধ্যে জবাব দিতে বলা হয়েছে।