প্রতীক্ষার অবসান, অবশেষে লঞ্চ হল আইফোন ৮, আইফোন ৮ প্লাস

অবশেষে আইফোন ৮ আর আইফোন ৮ প্লাস লঞ্চ করল অ্যাপল। এখন পর্যন্ত তৈরী আইফোনগুলির মধ্যে সবথেকে আধুনিক আইফোন এটি। যা আপনার দৈনন্দিন কাজগুলিকে করে তুলবে আরও সহজ। গতকাল অ্যাপল পার্কে লঞ্চের সময় জানানো হয় নতুন আইফোন-এ রয়েছে আরও আধুনিক প্রযুক্তির ক্যামেরা, আরও ভালো প্রসেসিং পাওয়ার একই সাথে রয়েছে আগের থেকেও ভালো ব্যাটারি ব্যাক-আপ, স্টিরিও স্পিকার, আরও কালারফুল ডিসপ্লে, দুটি নতুন লেন্স এর সাথে গোটা ফোনটি ওয়াটার ও ডাস্ট রেসিস্ট্যান্ট।

লঞ্চ ইভেন্টে অ্যাপেলের বিশ্বব্যাপী বানিজ্যের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ফিল স্কেলার জানিয়েছেন ‘আইফোন ৮ আর আইফোন ৮ প্লাস নাটকীয় ভাবে বদলে দেবে আপনার আইফোন ব্যাবহারের অভিজ্ঞতা, অত্যাধুনিক আবিষ্কার ও নির্ভুলভাবে সেটিকে ব্যাবহার করে আমরা এখনো পর্যন্ত সেরা আইফোন-টি বানাতে পেরেছি। ’

তিনি আরও বলেন, ‘সম্পুর্ণ নতুন ভাবে ডিজাইন করা আইফোন ৮ আর আইফোন ৮ প্লাস-এর ক্যামেরাগুলি। এই ক্যামেরার মাধ্যমে কম আলোতেও অসাধারন ছবি তোলা যাবে। এ১১ বায়োনিক চিপ এখনো পর্যন্ত স্মার্টফোনের জন্য বানানো সবথেকে শক্তিশালি প্রসেসার। নতুন আইফোন-এর প্রি-অর্ডার শুরু ১৫ সেপ্টেম্বর আর ২২ তারিখে শিপিং কিন্তু একই সাথে নতুন আইফোন-এ আগের যেকোন আইফোন-এর থেকে বেশি ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে। নতুন স্টিরিও স্পিকার আগের থেকে দ্বিগুন আওয়াজ হবে এবং স্পিকারে পাওয়া যাবে আরও গভীর বেস। এই সবকিছুর সাথেই নতুন আইফোন ওয়াটার ও ডাস্ট রেসিস্ট্যান্ট।

ডিজাইন
ঝলমলে সিলভার, গোল্ড আর স্পেস গ্রে রঙে পাওয়া যাবে নতুন আইফোন ৮ আর আইফোন ৮ প্লাস। সম্পূর্ণ নতুন উপাদানে তৈরী নতুন আইফোন-এর বডি। ‘সুপার স্ট্রং ফরমুলা’ দিয়ে তৈরী হয়েছে নতুন আইফোন। ফোনে ব্যাবহার করা হয়েছে অ্যারোস্পেস-গ্রেড অ্যালুমিনিয়াম। নতুন আইফোন-এ মেটাল বডি ব্যাবহার না করে ফোনের পিছনে ব্যাবহার করা হয়েছে গ্লাস ডিজাইন। কোম্পানির মতে এটি যেকোন স্মার্টফোনে ব্যাবহৃত গ্লাসের মধ্যে সবথেকে টেকসই।

দুটো ফোনেই যথাক্রমে রয়েছে ৪.৭ ইঞ্চি ও ৫.৫ ইঞ্চি রেটিনা ডিসপ্লে। এটি এখনো পর্যন্ত যেকোন ফোনে ব্যাবহৃত ও সবথেকে রঙ্গিন ডিসপ্লে। আরও বিস্তৃত কালার গমুটের ফলে নতুন নতুন আইফোনে পাওয়া যাবে সিনেমা স্ট্যান্ডার্ড কালার। ডিসপ্লের নিচের হোম বাটনটি আগের থেকেও বেশি রেসপন্সিভ।

নতুন কাস্টম ডিজাইন এ১১ বায়োনিক চিপে আছে আধুনিক সব আর্কিটেকচার। ফলে এটি এখন যেকোন স্মার্টফোনের সবথেকে পাওয়ারফুল প্রসেসার। পাওয়ারফুল প্রসেসারের সাথসাথেই নতুন এই আইফোনে পাওয়া যাবে সবথেকে বেশি ব্যাটারি ব্যাকআপ।

নতুন এ১১ বায়োনিক চিপে চারটি কোর আছে যেগুলি সবকটি একসাথে কাজ করতে সক্ষম এবং এর প্রসেসিং পাওয়ার আইফোন ৭-এর থেকে ২৫% বেশি। নতুন এই এ১১ বায়োনিক চিপ আগের এ১০ চিপের থেকে ৭০% ফাস্ট। আইফোন ৭-এর থেকে ৩০% ফাস্ট আইফোন ৮-এর জিপিইউ। এর ফলে নতুন আইফোনে গেমিং এক্সপেরিয়েন্স আরও ভালো হবে।

পৃথিবীর সবথেকে জনপ্রিয় ক্যামেরা আইফোন-এর ক্যামেরা। আইফোন ৮ আর আইফোন ৮ প্লাস-এ আরও ভালো হয়েছে পৃথিবীর সবথেকে জনপ্রিয় এই ক্যামেরা। আইফোন ৮ আর আইফোন ৮ প্লাস-এর ক্যামেরা ১২ মেগাপিক্সেল। সাথে রয়েছে অপটিকাল ইমেজ স্টেবিলাইজেশান, এফ/১.৮ অ্যাপারচার, ৬ এলিমেন্ট লেন্স যা দিয়ে আগের থেকেও বেশি উজ্জ্বল ছবি তোলা সম্ভব হবে।

এর সাথেই আইফোন ৮ প্লাস-এ রয়েছে একটি সেকেন্ডারি ১২ মেগাপিক্সেল এফ২.৮ টেলিফটো ক্যামেরা। আর ররেছে ট্রুটন ফ্ল্যাশ। আইফোন৮ প্লাস-এর ডুয়াল ক্যামেরায় আছে ‘পোট্রেট লাইটিং’ফিচার। এর মাধ্যমে আপনি পোট্রেট ছবির লাইট অ্যাডজাস্ট করতে পারবেন আপনার ক্যামেরা অ্যাপের মধ্যে থেকেই। দুটি ফোনেই তোলা যাবে ৪কে/৬০এফপিএস ভিডিও আর ১০৮০ পিক্সেল ২৪০এফপিএস স্লোমোশান ভিডিও।

অন্যান্য গুরুত্বপুর্ণ ঘোষণা
আগামি ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে গ্রাহকরা পাবেন আইওএস ১১ আপডেট। আইফোন ৮ আর আইফোন ৮ প্লাস-এ রয়েছে ওয়ারলেস চার্জিং সাপোর্ট। আইফোন ৮ আর আইফোন ৮ প্লাস ডিজাইন করা হয়েছে অ্যাগমেন্টেড রিয়ালিটি আরও ভালো করে ব্যাবহারের জন্য। ফোনের নতুন ক্যামেরা, জাইরোস্কোপ, অ্যাক্সেলেরোমিটারের সমন্বয়ে এই কাজ করতে সক্ষম হয়েছে কোম্পানি।

কত দাম? কবে পাওয়া যাবে?
৬৪জিবি ও ২৫৬জিবি দুটি স্টোরেজ অপশানে পাওয়া যাবে নতুন দুটি ফোন। ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে প্রি-অর্ডার। ২২ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে ফোনের বিক্রি। আইফোন ৮ এর দাম শুরু ৬৯৯ মার্কিন ডলার (প্রায় ৫৮ হাজার টাকা) থেকে। আর আইফোন ৮ প্লাস-এর দাম শুরু ৭৯৯ মার্কিন ডলার (প্রায় ৬৬ হাজার টাকা) থেকে। সর্বোচ্চ ১ হাজার ডলার (৮৩ হাজার টাকা) পর্যন্ত হবে এই সিরিজের ফোনের দাম।

Facebook

Get the Facebook Likebox Slider Pro for WordPress