লকডাউনে বাড়ল ১৬ মে পর্যন্ত, বন্ধ থাকবে দূরপাল্লার বাস চলাচল

আগামী ১৬ মে পর্যন্ত লকডাউনের বিধিনিষেধ চলমান থাকবে। আজ সোমবার মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বৈঠক শেষে এ তথ্য জানিয়েছেন।

সচিব আরও জানান, আগামী ৬ মে থেকে জেলার ভেতরে গণপরিবহণ চলবে। তবে দূরপাল্লার বাস, ট্রেন ও লঞ্চ চলাচল বন্ধ থাকবে। সেবা খাত ছাড়া সরকারি অফিস বন্ধ থাকবে। বন্ধ থাকবে সীমান্ত। এ ছাড়া গার্মেন্টসসহ শিল্পকারখানা তিন দিনের বেশি ছুটি দেওয়া যাবে না।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম আরও জানান, বিধিনিষেধ চলাকালে দোকানপাট ঈদ পর্যন্ত খোলা থাকবে। তবে যদি স্বাস্থ্যবিধি না মানা হয়, তবে বন্ধ করে দেওয়া হবে। সিদ্ধান্ত অমান্য করলে জরিমানা করা হবে।

সচিব আরও বলেন, ‘সুপারিশগুলো প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো হবে। তারপর অফিশিয়াল সিদ্ধান্ত এলে প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।’

এর আগে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম বলেছিলেন, ‘জেলার ভেতরে গণপরিবহণ চলতে পারে। কিন্তু জেলা থেকে জেলায় গণপরিবহণ চলার মতো পরিবেশ ও পরিস্থিতি এখনও তৈরি হয়নি।’

রাজধানীর মহাখালীর ডিএনসিসি ডেডিকেটেড কোভিড-১৯ হাসপাতালে আজ সোমবার দুটি অ্যাম্বুলেন্স এবং একটি লাশবাহী গাড়ি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক।

এ সময় স্বাস্থ্যের ডিজি আরও বলেন, ‘করোনার ঊর্ধ্বগতি নিয়ন্ত্রণের জন্য স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের সুপারিশে দেশে লকডাউন চলছে। এপ্রিল মাসে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু বেশি থাকলেও এখন কিছুটা কমে আসছে।’ করোনা নিয়ন্ত্রণে আরও কিছুদিন গণপরিবহণ চলাচল বন্ধ রাখতে হবে বলে জানান তিনি।

এ সময় করোনার টিকা বিষয়ে ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম বলেন, ‘মডার্নার টিকা আমদানি করতে সরকারের কাছে আবেদন করেছে ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠার রেনাটা বাংলাদেশ।’